রংপুরের ৫ জনকে ঠাকুরগাঁও মেডিকেলের আইসোলেশনে স্থানান্তর

একই পরিবারের অসুস্থ্য ৫ জনকে রংপুর থেকে ফেরত পাঠিয়েছে কর্তৃপক্ষ। রাখা হয়েছে ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে। রবিবার রাতে তাদের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি রাখা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন বলে জানিয়েছেন সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ রকিবুল আলম। তারা প্রত্যেকেই আগের চেয়ে অবস্থার উন্নতি হয়েছে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ঠাকুরগাঁওয়ের সদর উপজেলার চিলারং ইউনিয়নে আড়াই বছরের এক শিশুসহ একই পরিবারের ৫ জন জ্বর ও শ্বাসকষ্টজনিত রোগে আক্রান্ত হয়। স্থানীয় প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের লোকজন তাদেরকে শনিবার সন্ধ্যায় পরীক্ষা-নিরিক্ষার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজে পাঠায়।

গত শুক্রবার রাতে ঢাকা থেকে ট্রেন যোগে শরীরে জ্বর থাকাবস্থায় শনিবার সকালে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার চিলারং ইউনিয়নে তার নিজ বাসায় আসেন ওই পরিবারের কর্মক্ষম ব্যাক্তি। বাসায় আসার পর তার শরীরে জ্বরের তীব্রতা আরও বেড়ে যায়। এর সঙ্গে শ্বাসকষ্ট ও পাতলা পায়খানা শুরু হয়। একই সমস্যা তার স্ত্রী ও ছোট্ট শিশু সন্তানটিরও।

আক্রান্ত হওয়া ব্যক্তির বরাতে স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ জানান, ঢাকা থেকে ফেরার পূর্বে সেখানে লোকজনের সাথে একটি পিকনিকে অংশ নিয়েছিলেন ওই আক্রান্ত ব্যক্তি। পিকনিকে অংশ নেয়া ব্যক্তিদের মধ্যে কারো সংস্পর্শে আসার পরই তিনি জ্বরে আক্রান্ত হন।

এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাঃ মোঃ রকিবুল আলম জানান, রংপুর মেডিকেলে পাঠানোর পর তাদের নমুনা সংগ্রহ করে আইইডিসিআর এর সদস্যরা। নমুনা তারা ঢাকায় প্রেরণ করেছে ঢাকা থেকে রিপোর্ট আসার পর তাদের বিষয়ে করণীয় বলা যাবে। বর্তমানে পরিবারের ৫ জন সদরের আইসোলেশন ওয়ার্ডে আছে। আগের চেয়ে তারা এখন কিছুটা সুস্থ রয়েছে।

#জুনাইদ কবির, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত