প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ: ১৪ জেলার ফল স্থগিত

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক নিয়োগে ১৪ জেলার ফলাফল স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ৬ মাসের জন্য এই ঘোষণা বলবৎ থাকবে বলে হাইকোর্টের আদেশে বলা হয়েছে। এক রিটের শুনানি নিয়ে সোমবার বিচারপতি শেখ হাসান আরিফের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক নিয়োগে ১৪ জেলার ঘোষিত ফলাফল ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। এ সংক্রান্ত এক রিটের শুনানি নিয়ে সোমবার বিচারপতি শেখ হাসান আরিফের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

স্থগিতকৃত জেলাগুলো হলো- পটুয়াখালী, মাদারীপুর, সিরাজগঞ্জ, নওগাঁ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, হবিগঞ্জ, ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, নোয়াখালী, যশোর, সাতক্ষীরা, টাঙ্গাইল, বরগুনা ও ঠাকুরগাঁও।

এর আগে ১৪ জানুয়ারি, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১৮ হাজার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের ফলাফল ঘোষণা কেন অবৈধ ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না তা জানতে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। রুলে বলা হয়, নিয়োগের ক্ষেত্রে শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা (২০১৩) অনুসরণ করা হয়নি।

মানা হয়নি পুরুষ-নারী কোটাও। এছাড়া থানা ভিত্তিক নিয়োগ হওয়ার কথা থাকলেও তা জেলা ভিত্তিক ফল প্রকাশ করা হয়। এমন কয়েকটি অনিয়মের কারণে এই রুল জারি করেছে আদালত। প্রাথমিক শিক্ষা সচিব, ডিজিসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের ১০ দিনের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

২০১৯ সালের ২৪ ডিসেম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হয়। এতে মোট পাস করেন ১৮ হাজার ১৪৭ জন।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ৩০ জুলাই ‘সহকারী শিক্ষক’ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। সেখানে ২৪ লাখ ৫ জন প্রার্থী আবেদন করেন। লিখিত পরীক্ষায় ৫৫ হাজার ২৯৫ জন প্রার্থী পাস করেন। পরবর্তীতে তাদের মৌখিক পরীক্ষা নেয়া হয়। মাসব্যাপী সারাদেশের সব জেলায় মৌখিক পরীক্ষা আয়োজন করা হয়।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত