রাতের চা-ওয়ালা ছেলেটি জিপিএ-৫ পেয়েছে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার সাহেরা গফুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে মো. বিশাল মিয়া। পিইসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে বিশাল। জানা যায়, বাবার সঙ্গে চায়ের দোকানে দিন কাটিয়ে গভীর রাতের পড়ালেখায় তার এ সাফল্য।

বিশালের পিইসির ফলাফল বিবরণী থেকে দেখা যায়, সে ছয়টি বিষয়ের প্রতিটিতেই এ প্লাস পেয়েছে। বাংলায় ৮৫, ইংরেজিতে ৮৭, গণিতে ৮০, সমাজ বিজ্ঞানে ৯০, সাধারন বিজ্ঞানে ৯১ ও ধর্মে ৯৬ নম্বর। ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেলওয়ে স্টেশনের দুই নং ফ্ল্যাটফরমের দক্ষিণ-পূর্ব প্রান্তে তাদের দোকানটির ভ্রাম্যমান টি স্টলের অবস্থান।

বিশালের বাবা মো. লিয়াকত আলীর সাথে কথা হলে তিনি জানান, লিয়াকত আলী স্ত্রী, দুই ছেলে ও এক মেয়েকে নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার মৌড়াইলে থাকেন। সামান্য এই ভ্রাম্যমাণ টি-স্টল দিয়েই তিন সন্তানের পড়াশুনা, বাড়ি ভাড়াসহ সাংসারিক খরচ চালান তিনি। বড় ছেলের নাম ইভান। আগে বাবার সাথে ইভানই দোকানদারী করতো। কিন্তু এখন বিশাল বাবাকে দোকানে সাহায্য করছে।

বিকেল পাঁচটা থেকে রাত ১টা পর্যন্ত একটানা বাবার সাথে থাকেন তিনি। রাত ১টার দিকে ঘরে ফিরে পড়তে বসে বিশাল।স্কুলের পাশাপাশি প্রাইভেট পড়া ছাড়াও দোকান থেকে বাড়ি ফিরেও পড়াশুনা করতো। মা কুলসুম বেগম তাকে স্কুল পাঠানো, পড়াশুনা নিয়মিত করার বিষয়ে উৎসাহ দেয়। বড় ভাই, বোনদের কাছ থেকেও উৎসাহ পায়।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত