বিক্ষোভে উত্তাল পাকিস্তান, ইমরানের পক্ষে আছে সেনাবাহিনী

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী এবং তার সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে পাকিস্তান। দেশটির বিরোধী দলগুলো এরই মধ্যে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের পদত্যাগের দাবিতে ৪৮ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে। এই দুই দিনের মধ্যে ইমরান পদত্যাগ না করলে পরিস্থিতি আরো খারাপ হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিরোধী দলগুলো।

তবে এই মুহুর্ত্বে পাকিস্তান সেনাবাহিনী জানিয়ে দিয়েছে তারা কারো পক্ষ নেবে না। সেনাবাহিনী জানিয়েছে, সংবিধান ও আইন রক্ষার্থে তারা সরকার সমর্থন করবে। দেশটির সেনাবাহিনীর মুখপাত্র জেনারেল আসিফ গফুর বলেছেন – আমরা আইন ও সংবিধানে বিশ্বাস করি। কোনো দলকে সমর্থন করা আমাদের কাজ নয়।

এদিকে, গত শুক্রবার রাতে লাখো জনতার অবস্থান থেকে পদত্যাগে ইমরান খানকে দুই দিনের সময় দিয়েছেন দেশটির বিরোধী দল জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমান। তিনি বলেন – ইমরান যদি এই সময়ের মধ্যে পদ থেকে সরে না দাঁড়ান, তবে ভিন্ন কৌশল নিতে আমরা বাধ্য হব। এরপরে আমাদের ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে যাবে।

এদিকে, পাকিস্তানি গণমাধ্যম দ্য ডন জানায়, এই বিক্ষোভের ফলে অনেকটাই নড়েচড়ে বসেছে ইমরান সরকার। মাওলানার এ ঘোষণার পরই ইসলামাবাদের নিরাপত্তা আরও জোরদার করা হয়। আগে থেকে বন্ধ থাকা গুরুত্বপূর্ণ সড়কের পাশাপাশি ছোট রাস্তাগুলোও বন্ধ করা হয়েছে। শনিবার সকালে আলোচনার জন্য গঠিত সরকারি কমিটি জরুরি বৈঠক করে। সেখান থেকে বিরোধী নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাতের সিদ্ধান্ত নেন তারা। পিপলস পার্টির নেতাদের মাধ্যমে মাওলানা ফজলুর রহমানের সঙ্গে মীমাংসায় যাচ্ছে ইমরান প্রশাসন।

মূলত এই বিক্ষোভ শুরু করেছেন জমিয়াতে উলামায়ে ইসলামের প্রধান ফজলুর রহমান এই আজাদি মার্চের ডাক দিয়েছে। তার মতে, নির্বাচনে কারচুপি করে ইমরানের সরকার ক্ষমতায় এসেছে। তাই তাকে অপসারণ করার জন্য এই আন্দোলনের ডাক দেন তিনি। গত সোমবার করাচি থেকে শুরু হওয়া এ আজাদি পদযাত্রা বৃহস্পতিবার রাজধানী ইসলামাবাদ পৌঁছায়।

বিরোধী দলীয় নেতা মাওলানা ফজলুর রহমানের নেতৃত্বে পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বিরোধী আজাদি মার্চে কয়েক লাখ মানুষ অংশ নিয়েছে। লাখো জনতার বহর নিয়ে এদিন ইসলামাবাদে ঢুকেন মাওলানা ফজলুর রহমান।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত