৩ দিনে সৌদি থেকে এক কাপড়ে ফিরলো ৩৩২ বাংলাদেশি কর্মী

লাগাতারভাবে চলছে সৌদি আরব থেকে অবৈধ বাংলাদেশি ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া। নানা কারণে অবৈধ হয়ে পড়ার ফলে সেদেশের পুলিশের হাতে ধরা পড়ে জেল খেটে দেশে ফেরত আসতে হচ্ছে অনেক স্বপ্ন নিয়ে সৌদিতে পাড়ি দেওয়া মানুষগুলো। সর্বশেষ গত শুক্রবার এক কাপড়ে দেশে ফিরেছে ৭৫ জন বাংলাদেশি কর্মী। এ নিয়ে মাত্র তিন দিনে দেশে ফিরেছে ৩৩২ জন প্রবাসী।

আর বছর হিসেব করলে সেটি চমকে দেওয়ার মত। চলতি বছরে এখন পর্যন্ত সৌদি থেকে দেশে ফিরেছে প্রায় ১৮ হাজার কর্মী। ফেরত আসা বেশিরভাগ কর্মীর একটাই অভিযোগ। আকামার (কাজের বৈধ অনুমতিপত্র) শেষ হয়ে যাওয়া এবং কফিল (নিয়োগকর্তা) পরিবর্তনের কারণেই মূলত বাংলাদেশি কর্মী আটক হচ্ছে সৌদি আরবে। তবে কয়েকজন আরো অভিযোগ করেন আকামার মেয়াদ থাকলে পুলিশ রাস্তা থেকে ধরে নিয়ে গিয়ে দেশে পাঠিয়ে দিয়েছে।

আরও পড়ুন>>> সৌদি যুবরাজের ভিশন ২০৩০! বাংলাদেশি শ্রমিকদের কপালে দুঃখ

ফেরত আসা অনেকেই যাওয়ার কয়েকমাসের মধ্যেই দেশে ফিরে আসতে হয়েছে। জানা যায়, সৌদি আরবে গিয়েছে কেউ সাত মাস, কেউ আট মাস হয়েছে। কিন্তু এরইমধ্যে তাদের পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে দেশে। গড়ে তিন-চার লাখ টাকা খরচ করে সেখানে গিয়ে এখন সর্বস্ব হারানোর পথে ফেরত আসা এই মানুষগুলো।

এ ব্যাপারে ওয়েজ আর্নাস কল্যাণ বোর্ড সূত্র জানায়, এক কাপড়ে ফিরে আসা কর্মীরা নানা কারণে অবৈধ হয়ে পড়েছিলেন। তাঁদের ট্রাভেল পাস (ভ্রমণের বৈধ অনুমতিপত্র) দিয়ে ফিরিয়ে আনা হয়। গত ৩০ অক্টোবর ১৫৩ জন, ৩১ অক্টোবর ১০৪ জন ও ১ নভেম্বর ফিরেছেন ৭৫ জন।

সৌদি আরবের বাংলাদেশ এক কর্মকর্তা জানান, সৌদিতে আসা কর্মীদের কফিল বা কাজ পরিবর্তনের সুযোগ নেই। যে কাজ নিয়ে তাঁরা আসেন, এর বাইরে কিছু করার আইনগত অধিকার নেই তাঁদের। তাই বৈধভাবে আসার পরও অনেকে কাজ পরিবর্তন করার দায়ে অবৈধ হয়ে পড়েন।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত