অনেক কষ্টে হার আটকালো রিয়াল মাদ্রিদ

চ্যাম্পিয়নস লিগে নিজেদের কপালই যেন খুলতে পারছিল না। প্রথম ম্যাচ থেকেই কালো বিড়ালের ছায়া পড়েছে তাদের উপর। প্রথম ম্যাচে পিএসজির কাছে বাজেভাবে হার দিয়ে শুরু করে চ্যাম্পিয়নস লিগ শুরু করে জিদানের দল। এরপরের ম্যাচে হারতে যাওয়া ম্যাচ অনেক পরিশ্রম করে ২-২ গোলে ড্র করে তারা।

সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে মঙ্গলবার স্থানীয় সময় বিকালে রিয়ালের বিপক্ষে মাঠে নামে ক্লাব ব্রুজ। প্রথমার্ধে এমানুয়েল দেনিসের দুই গোলে এগিয়ে ব্রুজ। ম্যাচের ৯ মিনিটে বাঁ দিক থেকে সতীর্থের বাড়ানো বল জালে পাঠান ইমানুয়েল।

আর ৩৯ মিনিটে মদ্রিচের ভুলে বল পেয়ে যান এমানুয়েল। পরে ঠাণ্ডা মাথায় চিপ শটে গোল করেন ২১ বছর বয়সী তরুণ এই স্ট্রাইকার। ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় ব্রুজ।

বিরতির পর কোর্তোয়াকে সরিয়ে গোলপোস্টের নিচে আনেন আলফোন্সে আরেওলাকে জিদান। আর নাচো ফের্নান্দেসের বদলি নামে মার্সেলো। ম্যাচের ৫৫ মিনিটে করিম বেনজিমার ক্রস থেকে দুর্দান্ত হেডে গোল করেন অধিনায়ক রামোস। কিন্তু অফসাইডের কারণে গোলটি বাতিল হওয়ার শঙ্কা জেগেছিল, শেষ পর্যন্ত ভিএআরে বেঁচে যায় স্বাগতিকরা।

ম্যাচের ৮৪ মিনিটে ভিনিসিয়াস ‍জুনিয়রকে ফাউল করায় লাল কার্ড দেখেন ব্রুজ অধিনায়ক রুড ভরমার। পরের মিনিটে হেডে গোল করেন কাসেমিরো। শেষ পর্যন্ত বাকি সময় ১০ নিয়ে পার করে দেয় ব্রুজ। ফলে ম্যাচটি ২-২ ব্যবধানে ড্র হয়।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত