পেঁয়াজের আগুন এবার লাগলো ডিমের আড়তে

এক সপ্তাহের ব্যবধানে এক হালি ডিম বিক্রি হচ্ছে ৩৮ থেকে ৪০ টাকা

গত দেড় মাস ধরেই পেঁয়াজের বাজারমূল্য বেড়েই চলেছে। এর ফলে ভোক্তাদের পড়তে হচ্ছে চরম ভোগান্তিতে। কিন্তু এবার পেঁয়াজের সাথে প্রতিযোগীতায় নেমেছে ডিম। গত এক সপ্তাহের মধ্যে ডিমের দাম পাঁচ টাকা করে বেড়েছে। বর্তমানে এক হালির ডিমের ওদাম ৩৮ থেকে ৪০ টাকা! কিন্তু কয়েকদিন আগেও ডিমের হালি বিক্রি হতো ৩৩ থেকে ৩৫ টাকা।

এর পেছনেও কম সরবরাহকে দায়ী করেছে বিক্রেতারা। তারা জানান, চাহিদার তুলনায় ডিমের সরবরাহ না থাকায় ডিমের দাম বেড়েছে। এদিকে, এভিয়েন ইনফ্লুয়েঞ্জার কারণে খামারে মুরগী মারা যাওয়ার কারণে ডিমের সরবরাহ কমেছে বলে জানান বিক্রেতারা।

এদিকে নতুন করে দেশি পেঁয়াজের দাম না বাড়লেও আমদানিকৃত পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। কেজিতে ৫ টাকা বেড়ে প্রতি কেজি আমদানিকৃত পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬৫ থেকে ৭০ টাকা। আর দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা।

রাজধানীর কাওরানবাজারের পাইকারী পেঁয়াজ ব্যবসায়ী বেলায়েত মোল্লা জানান, মিয়ানমার, মিসর ও তুরস্ক থেকে পেঁয়াজ আমদানিতে এলসি (ঋণপত্র) খোলা হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে আমদানিকৃত পেঁয়াজ রাজধানীর বাজারে ঢুকবে বলে আশা করছি। তখন দাম কিছুটা কমবে।

তবে স্বল্প আয়ের মানুষের সুবিধার্থে সরকারের বিপনন সংস্থা ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) খোলাবাজারে তাদের পেঁয়াজ বিক্রির পরিমাণ আরো বাড়াচ্ছে। আজ শনিবার থেকে রাজধানীতে ১৬টি ট্রাকে করে পেঁয়াজ বিক্রি করা হবে। আগে ১০টি ট্রাকে পেঁয়াজ বিক্রি করা হতো। ৪৫ টাকা কেজি দরে প্রতিটি ট্রাকে ১ হাজার কেজি পেঁয়াজ বিক্রি করা হবে।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত