জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়লো আফগানিস্তান

গতকাল ত্রিদেশীয় সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নেমেছিল আফগানিস্তান-জিম্বাবুয়ে। এর আগে বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ৩ উইকেটে হারে জিম্বাবুয়ে। কিন্তু ফেরার ম্যাচে উল্টো মুখ থুবড়ে পড়ে জিম্বাবুয়ে। আফগানদের বিপক্ষে ২৮ রানের হার।

টস জিত ব্যাটিংয়ে নেমে জিম্বাবুইয়ান বোলারদের তুলোধুনো করে ছাড়ে রহমতউল্ল্যা, নাজিবুল্লাহরা। শুরু থেকে বোলারদের উপর চড়াও হয় আফগান ওপেনার রহমতউল্ল্যাহ গুরবাজ। তিনি চব্বিশ বলে ৫ চার এবং ২ ছয়ে করেন ৪৩ রান। তার সতীর্থ হজরতুল্লাহ জাজাই ১৪ বলে ১৩ রান করে আউট হন।

মাঝে থাকা নাজিবুল্লাহ তারাকাই এবং আসগর আফগান দুজনেই ১৪ রান করে আউট হন। এরপর বাকীটুকু রচনা করেন নাজিবুল্লাহ জাদরান এবং অভিজ্ঞ মোহাম্মদ নবী। জাদরান ৩০ বলে ৫৯ রানের এক ঝোড়ো ইনিংস খেলেন।

তার এই ঝড় থেকে ৬টি ছয় এবং ৫টি চারের মার আসে। অপরদিকে নবী কোন বাউন্ডারি মারেননি। কিন্তু ১৮ বলে ৩৮ রান করার পথে ৪টি ওভার বাউন্ডারি মারেন এই অলরাউন্ডার।

এদিকে বোলিংয়ে এসেও সমানতালে দাপট দেখিয়েছে আফগানিস্তান। ফরিদ মালিক এবং রশীদ খানের বোলিং তোপে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৬৯ রানে পারে টেইলর, মাসাকদজারা। দলের মধ্যে সর্বোচ্চ ৪২ রান করতে পেরেছেন রেজিস চাকাভা। বাংলাদেশের বিপক্ষে ঝড় তোলা রায়ান বার্ল করেন ২৫ বলে ২৫ রান।

রশিদ খানের দলের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে জিম্বাবুয়ে প্রথমবারের মত জয়ের সুযোগ ছিল। কিন্তু কোনভাবেই সফল হতে পারেনি হ্যামিল্টন মাসাকাদজারা।  ২৮ রানের এ জয়ে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে জিম্বাবুয়ের সঙ্গে মুখোমুখি লড়াইয়ে এখন ৮-০ ব্যবধানে এগিয়ে রইলো আফগানিস্তান। এছাড়াও কুড়ি ওভারের ফরম্যাটের বিশ্বরেকর্ড, টানা ১১তম জয় এটি আফগানদের।

আজ আফগানিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামবে সাকিব, আফিফরা। শেরেবাংলা আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত