আত্মহত্যার চিরকুট, “আমার স্বামীকে কেউ দোষ দিও না”

আমার মৃত্যুর জন্য কেউ দায়ী নয়। আমি নিজের ইচ্ছায় গলায় দড়ি দিলাম। কেউ আমার স্বামীকে দোষ দিও না। মা তোমরা কেউ বাদী হইও না। এটা আমার অনুরোধ রইলো। নীলা। ঠিক এমন একটি চিরকুট লিখে রেখে আত্মহত্যা করেছিল নীলা খাতুন (২৬) নামের এক গৃহবধূ।

নীলা খাতুন ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের চাপালী কুঠিপাড়ায় একটি ভাড়া বাড়িতে তিন সন্তান এবং স্বামীর সাথে থাকতেন। তিনি উপজেলার চেউনিয়া গ্রামের শামিরুল ইসলামের স্ত্রী। তার স্বামী শহরের একটি হোটেলে কাজ করেন।তাদের নিলয়-নিরব নামের দেড় বছরের যমজ ছেলে এবং শামীমা নামের ৬ বছরের একটি মেয়ে সন্তান আছে।

Suicide Note

রোববার রাতে উপজেলার ভাড়া বাড়ি থেকে চিরকুটসহ ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ব্যাপারে নীলার ভগ্নিপতি নয়ন হোসেন বলেন – রাতে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসি। এসে দেখি নীলা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। আসার পর নীলার মেয়ে শামীমা আমাকে দুটি কাগজ ধরিয়ে দেয়।

শামীমা আমাকে জানায়, দুপুরের দিকে তার মা এই কাগজে কিছু একটা লিখেছে। নীলা আত্মহত্যা করার সময় পাশের ঘরেই তার স্বামী শুয়ে ছিলেন। তবে কী কারণে নীলা আত্মহত্যা করেছেন তা কেউ বলতে পারছে না।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কালীগঞ্জ থানার ওসি মো. ইউনুছ আলী জানান, নীলার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত