বাবার আসনে বসতে মনোনয়ন নিল ছেলে

জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদ মারা যাওয়ার পর রংপুর-৩ আসনটি খালি হয়ে আছে। তাই সেই আসনে নির্বাচন করার জন্য শুরু হয়ে গেছে প্রার্থী নির্বাচন। সেই লক্ষ্যে আজ (২ সেপ্টেম্বর) জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে বিতরণ করা হয়েছে মনোনয়ন ফরম।

রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে দল থেকে মনোনয়ন সংগ্রহ করলেন প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ছেলে রাহগির আল মাহি সাদ। আজ দুপুরে জেপির চেয়ারম্যানের কার্যালয় থেকে তিনি মনোনয়ন সংগ্রহ করেন। তবে সাদ ছাড়া আরো অনেকে উপনির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়ন নিয়েছে।

তাদের মধ্যে আছেন- জাপার যুগ্ম মহাসচিব এস এম ইয়াসির, প্রেসিডিয়াম সদস্য এস এম ফখর-উজ-জামান জাহাঙ্গীর ও এরশাদের ভাগ্নি মেহেজেবুন্নেছা রহমান টুম্পাও দলের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন।

এরশাদের মৃত্যুর পর থেকেই তাঁর আসনে উপনির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী নিয়ে শুরু হয় জল্পনা-কল্পনা। এরশাদের পরিবারের লোকেরা যেমন চান উপনির্বাচনে এরশাদের আসনটিতে তাঁদের পরিবারের কেউ সংসদ সদস্য নির্বাচিত হোক, একইভাবে রংপুর বিভাগের দুজন কেন্দ্রীয় নেতাও চান এরশাদ পরিবারের বাইরে অন্য কেউ ওই অঞ্চল থেকে জনপ্রিয় নেতা না হয়ে উঠুক।

Tumpa and saad

প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের ভাগ্নি টুম্পা এবং ছেলে সাদ।

জাপার একটি সূত্রে জানা যায়, এরই মধ্যে পারিবারিক সমঝোতায় এরশাদ-রওশনপুত্র রাহগির আল মাহী সাদকে রংপুর-৩ উপনির্বাচনে প্রার্থী করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যদিও আসনটিতে জাতীয় পার্টির ১২ হাজার নেতাকর্মীসহ দল থেকে নির্বাচিত ইউনিয়ন পরিষদ, উপজেলা পরিষদ ও রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র ও একাধিক কাউন্সিলর স্বাক্ষরিত একটি আবেদন পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির কাছে পাঠানো হয়।

ওই আবেদনে তাঁরা দাবি জানান, রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনে রংপুর মহানগর জাপার সাধারণ সম্পাদক এস এম ইয়াসিরকে দলীয় মনোনয়ন দিতে। তাই শেষ পর্যন্ত কী হয়- তা দেখার জন্য অপেক্ষা করতে হবে আরো কিছু দিন।

গত ১৪ জুলাই এরশাদের মৃত্যুর পর শূন্য হয় রংপুর সদর উপজেলা ও সিটি করপোরেশনের ২৫টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত গুরুত্বপূর্ণ এই আসন।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত