মিরসরাইয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজ, যান চলাচল ব্যাহত

মিরসরাই পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কেরামত আলী সড়কের ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজের কারণে যান চলাচল ব্যহত রয়েছে। সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন ৫শতাধিক গাড়ি চলাচল করলেও গত ২ মাস যাবৎ কোন গাড়ি চলাচল করছেনা। এতে করে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে এলাকাবাসী।

স্থানীয় বাসিন্দা প্রবাসী হাজ্বী আব্দুল মতিন বলেন – কেরামত আলী সড়কের ব্রীজটি প্রায় ৩৫ বছর পূর্বে নির্মাণ করা হয়েছিলো। ব্রীজটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় সিএনজি-অটোরিক্সা ছাড়া বড় ট্রাকও পিকআপ চলাচল বন্ধ রয়েছে দীর্ঘদিন যাবৎ। আমার ব্যবহৃত ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে এখন বাড়ি যাওয়া সম্ভব হচ্ছেনা। বাধ্য হয়ে মিরসরাই সদরে বাসা নিতে হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন – কেরামত আলী সড়ক দিয়ে উপজেলার মিঠাছরা বাজার, জামালের দোকান, বটতল সহ বিভিন্ন আঞ্চলিক সড়কের প্রতিদিন ৫ শতাধিক গাড়ি চলাচল করে। সড়কটি মিরসরাই পৌরসভা, মিরসরাই সদর ইউনিয়ন ও মিঠানালা ইউনিয়নে আঞ্চলিক যোগাযোগের ক্ষেত্রে অন্যতম মাধ্যম। ব্রীজটি আগে থেকে ঝুঁকিপূর্ণ থাকলেও মলিয়াইশ খাল পুনঃখননের ফলে ব্রীজের একাংশের পিলার ধসে পড়ে। এতে গাড়ী চলাচল বন্ধ রয়েছে। ব্রীজটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় এলাকাবাসীর চলাচলে অনেক কষ্ট হচ্ছে।

মো. ইব্রাহিম ও মো. জেবাল হক বলেন – বিগত দুই বছর পূর্বে মলিয়াইশ খাল পুনঃখননের ফলে ব্রীজের পিলারের নীচ থেকে মাটি সরে যায়। চলতি বর্ষা মৌসুমে পানি বেড়ে যাওয়াতে খালের দু’পাশেও ভাঙ্গন দেখা দেয়। এতে করে ব্রীজের দক্ষিণ পাশের পিলার নীচে নেমে যায় এবং ছাদ থেকে আলাদা হয়ে যায়। ফলে ব্রীজের উপর দিয়ে এক সাথে ৪-৫ জন লোক চলাচল করলে ব্রীজ কেঁপে উঠে। তাই এলাকাবাসী ভয়ে এক সাথে একের অধিক চলাচল করে না।

বিষয়টি সত্যতা নিশ্চিত করে মিরসরাই পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কোব্বাত মিয়া বলেন – ব্রীজটি দ্রুত সময়ের পুনঃনির্মাণ করা প্রয়োজন। ঝুঁকিপূর্ণ ব্রীজের কারণে ব্রীজের উপর দিয়ে কোন যানবাহন চলাচল করছেনা।

মিরসরাই পৌরসভার উপ-সহকারী প্রকৌশলী সজীব চাকমা বলেন – সরেজমিনে গিয়ে ব্রীজটি আমরা পরিদর্শন করেছি। ব্রীজটি পুনঃনির্মাণ করার মতো অর্থ পৌরসভা থেকে ব্যয় করা সম্ভব নয়। তাই সরকারী অন্যান্য দপ্তরের সাথে কথা বলে ব্রীজটি পুনঃনির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হবে শীঘ্রই।

মিরসরাই পৌরসভার প্যানেল মেয়র শাখের ইসলাম রাজু বলেন – ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ার কারণে ব্রীজটি দিয়ে গাড়ি চলাচলা না করার বিষয়টি আমরা শুনেছি। দ্রুত সময়ের মধ্যে ব্রীজটি পুনঃনির্মাণ করা হবে বলে জানান তিনি।

#ইকবাল হোসেন জীবন, মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত