“আগুন নিয়ে খেলা করছে ভারত!”

ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা রদে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল ও রাজ্যটি বিভাজন মাধ্যমে ‘ভারত আগুন নিয়ে খেলা করছে’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে পাকিস্তানের প্রভাবশালী সংবাদপত্র দ্য ডন।

এতে বলা হয় – সংবিধানে সংরক্ষিত ভারতনিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলে বিজেপির বেপরোয়া ও বিপজ্জনক পদক্ষেপে উপমহাদেশে অশান্তির হুমকি মারাত্মকভাবে বৃদ্ধি পেতে পারে।

প্রকৃতপক্ষে, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির চারপাশে থাকা কট্টর হিন্দু মৌলবাদীরা আন্তর্জাতিক অভিমতকে অগ্রাহ্য করতে মোদিকে বুঝিয়েছেন। অথচ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় কাশ্মীরকে একটি বিরোধপূর্ণ অঞ্চল বলেই দৃঢ়ভাবে বিবেচনা করে। এখন অধিকৃত অঞ্চলকে ইন্ডিয়ান ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত করে ভারত ধ্বংসাত্মক পথে হাঁটছে।

ভারতের সর্বশেষ লোকসভা নির্বাচনের পর মোদি ও তার সঙ্গীরা এই হঠকারিতাপূর্ণ উদ্দেশ্য দিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে আত্মবিশ্বাস পেলেও এই ঘৃণ্য লক্ষ্যটি দীর্ঘদিন ধরেই বিজেপির এজেন্ডা ছিল। ক্ষমতা ও উচ্চাভিলাষে মত্ত হয়ে হীন রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থের আশায় ভারতীয় সরকার আগুন নিয়ে খেলার ঝুঁকি নিয়েছে।

কিন্তু যে প্রশ্নটি এখানে করতেই হবে – তারা এখন কোথায়, অল্প কয়েক দিন আগে যারা কাশ্মীর ইস্যুতে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে মধ্যস্থতার ইচ্ছার কথা জানিয়েছিলেন? সত্যিকার অর্থে কাশ্মীরে ভারতীয় পদক্ষেপ নিয়ে মার্কিন প্রতিক্রিয়া ব্যাপকভাবে হতাশাজনক।

তবে ভারত সরকারের পরিকল্পনার বিরুদ্ধে অধিকৃত কাশ্মীরের নেতৃবৃন্দ একতাবদ্ধকে গত কয়েক দিনের ঘটনাপ্রবাহের একটা ইতিবাচক উন্নয়ন বলে মনে করছে পত্রিকাটি। এতে বলা হয়, মালয়েশিয়া ও তুরস্কসহ বিদেশি নেতাদের সঙ্গে এ বিষয়ে যোগাযোগ ও তাদের ঐক্যবদ্ধ করা ছিল পাকিস্তানের ভালো উদ্যোগ।

পাশাপাশি কাশ্মীর নিয়ে ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থা ওআইসির কঠোর দৃষ্টিভঙ্গি অবলম্বন এবং কাশ্মীর সংকটকে আন্তর্জাতিক মঞ্চে তুলে ধরার সঠিক সময় বলে উল্লেখ করা হয়। তবে পাকিস্তান এক্ষেত্রে একা পারবে না। কাশ্মীরের ভুক্তভোগীদের প্রতি ‘ওআইসি’ সহায়তার হাত বাড়ালে বিশ্ব তাদের কথা শুনবে বলে মনে করে পত্রিকাটি।


চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি এবং পাশাপাশি সকল চাকরির প্রস্তুতি প্রকাশ করা হয় । এছাড়া দিনের ব্রেকিং নিউজ সবার আগে পেতে আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন:facebook-button-join-group

সরকারি এবং বেসরকারি চাকুরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পেতে facebook-button-join-group

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত