কোহলিদের ধপাস করে মাটিতে ফেললো নিউজিল্যান্ড

‘রিজার্ভ ডে’ তে খেলতে নেমেই কাঁদতে হল ভারতকে। মাত্র ১৮ রানের জন্য ফাইনালের টিকেট পেল না কোহলিরা। অপরদিকে টানা দ্বিতীয়বারের মত ফাইনালে উঠলো নিউজিল্যান্ড।

গতকাল ব্যাটিং শেষ করার ঠিক আগ মুহুর্তে বৃষ্টির বাধা শুরু হয় ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে। তাই রিজার্ভ ডের আজকে ব্যাটিং করতে নেমে ভালোকিছু করতে পারেনি কিউইরা। ২৩৯ রানে থামতে হয় তাদের।

ভারতের সামনে এমন টার্গেট খুবই মামুলি মনে হতে পারে। কেনই বা  হবে ওপেনার রোহিত শর্মা আছেন ফর্মের তুঙ্গে। তাছাড়া বিরাট, ধোনির মত ব্যাটসম্যানরাতো আছেই। কিন্তু এই মামুলি টার্গেট তাদের সামনে পাহাড় সমান করে ফেলে ট্রেন্ট বোল্ট আর হেনরি নিকোলস।

ভারতের স্কোর বোর্ডে ২৪ রান তুলতে একে একে হারায় ৪টি মুল্যবান উইকেট। বোলারদের তুলোধুনো করা সেঞ্চুরি বয় রোহিত আজকে মাত্র ১ রান করে সাজঘরে ফেরেন। এরপর বিরাট কোহলি এসেও রোহিতের কাতারে নাম লেখালেন। ভারতের প্রথম সারির তিন ব্যাটসম্যানের রান যথাক্রমে ১।

সেখান থেকে দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন হার্দিক পান্ডিয়া এবং রিশম পান্থ। কিন্তু দলীয় ৭১ রানে আঘাত হানেন মিচেল স্যান্টনার। ৫৬ বলে ৩২ রান করা রিশব পান্থকে গ্র্যান্ডহোমের হাতে বন্ধি করান কিউই অফ ব্রেকার। এরপর পান্ডিয়াকেও ফেরান সেই ৩২ রানেই।

মূলত ম্যাচে ভারতের জয়ের স্পৃহা জাগান রবিন্দ্র জাদেজা। তিনি একাই শাঁসিয়েছেন কিউই বোলারদের। দলের জয়ের অনেক নিকটে এসে বোল্টের স্লোয়ারের প্যাঁচে পড়ে যান তিনি। ৫৯ বলে ৭৭ রান করে মাঠ ছাড়েন জাদেজা।

এরপর ধোনি অনেকটা চেষ্টা করেও ম্যাচটি আর ভারতের দিকে আনতে পারলেন না। উল্টো, বল নষ্ট করে ৭২ বলে ৫০ রান করে রানআউটে কাটা পড়েন তিনি। শেষদিকে কিউইদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ২২১ রানে অলআউট হয় ভারত।

এই ম্যাচ জয়ের ফলে প্রথম দল হিসেবে ফাইনালে চলে গেল ব্ল্যাকক্যাপরা। টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ১১ জুলাই মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া এবং ইংল্যান্ড।

পাঠকের মতামত