সিলেটে মেয়রের ঘরে কালনাগীন!

ছোট বেলায় নাগ-নাগিনীর সিনেমা অনেক দেখেছি। ভাবতাম এমন সাপ কি আছে পৃথিবীতে!। সেসকল সিনেমার ভিলেন চরিত্রে অভিনয় করা কালনাগিন এবার ধরা পড়েছে। তবে এটি সিনেমার মত মানুষে রূপ নেওয়া কালনাগিন নয়। সিলেটের মৌলবীবাজারের শ্রীমঙ্গলে বাহারী রঙের বিশালাকার এই সাপটি ধরা পড়ার খবর পাওয়া গেছে।।

শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শ্রীমঙ্গল শহরের ধানসিঁড়ি আবাসিক এলাকায় সাপটি দেখে উৎসুক জনতা ভিড় জমাতে থাকেন। পরে খবর দিলে সাপটিকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে নিয়ে যায় শ্রীমঙ্গলের বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন।

বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক সজল দেব জানান – বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কালনাগিনী সাপটি ওই এলাকার পৌর মেয়রের বাসার গেট সংলগ্ন প্রাচীরে বসে থাকতে দেখে স্থানীয় লোকজন। কিছুক্ষণের মধ্যে বাহারি রংয়ের সাপটিকে দেখতে উৎসুক মানুষের ভিড় জমে যায়। পরে সেখান থেকে সেটি উদ্ধার করে সেবা ফাউন্ডেশনে নিয়ে যাওয়া হয়।

সাপটি কালনাগিনী এ তথ্য নিশ্চিত করে সজল দেব জানান, সুবিধামতো সময়ে এটিকে লাউয়াছড়া জাতীয় পার্কে অবমুক্ত করা হবে।  এই সাপ এনিমেলিয়া প্রাণীজগতের কর্ডাটা পর্বের অন্তর্ভূক্ত একটি প্রাণী। এটি নাতীশীতষ্ণো অঞ্চলে এই সাপ বেশী পাওয়া যায়। বিশেষ করে দক্ষিণ এশিয়ার ভারত, বাংলাদেশ, নেপাল এবং শ্রীলঙ্কাতেও এই সাপ দেখতে পাওয়া যায়।

এরা কলুব্রিড পরিবারের সাপ। অর্থ্যাৎ এদের বিষ আছে কিন্তু মরঘাতী নয়। মানবদেহের কম ক্ষতিসাধন করা এই সাপের বৈজ্ঞানিক নাম Chrysopelea ornata ornata (বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চল)। এর তিনটি প্রজাতি এখন পর্যন্ত পাওয়া গেছে।

পাঠকের মতামত