ভোক্তা অধিকারকে ২ মাসের মধ্যে হটলাইন চালু করা নির্দেশ

ভোক্তাদের অভিযোগ শুনতে দুই মাসের মধ্যে ভোক্তা অধিকার হটলাইন চালু করার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। রোববার বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরকে এই নির্দেশ দিয়েছেন।

আদালত বলেছেন – ভোক্তা অধিকার সঙ্গরক্ষণ অধিদফতরের দেয়া তথ্যমতে, ০১৭৭৭৭৫৩৬৬৮ নম্বরে যোগাযোগ করে অভিযোগ জানাতে পারবেন ভোক্তারা। আদালত আরো বলেছেন – এর পাশাপাশি ৯৯৯৩৩৩-এ কল করে অভিযোগ জানানো যাবে। এ ছাড়া ছুটির দিনসহ ২৪ ঘণ্টা এ নম্বরগুলো হটলাইন হিসেবে চালু রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে, যাতে করে ভোক্তা সবসময় তাদের অভিযোগ জানাতে পারেন।

একই সঙ্গে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনকে (বিএসটিআই) সারা বছরই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। এ ছাড়া বাজারের সব পণ্যের সবসময় মান পরীক্ষার (র‍্যান্ডম টেস্টিং) নির্দেশও দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় যেসব পণ্য মানহীন হয়েছিল, ওই পণ্যগুলোর যেসব পরে আবারও মান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে, সেগুলোসহ বাজারের সব পণ্য সারা বছর র্যা ন্ডম টেস্ট করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সম্প্রতি ৪০৬টি খাদ্যপণ্যের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষা করে বিএসটিআই। এর মধ্যে ৩১৩টি পণ্যের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। ৩১৩টির মধ্যে ৫২টি পণ্য মানহীন বলে প্রতিবেদন দেয় মান নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থা। বাকি ৯৩ পণ্যের পরীক্ষার ফল প্রতিবেদন রোববার জমা দেয়া হয়েছে। তবে ৯৩ পণ্যের মধ্যে ২২টিকে মানহীন বলে প্রতিবেদন দিয়েছে বিএসটিআই। তবে এই ২২টি পণ্যকে অপসারণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

বিএসটিআইয়ের দাখিলকৃত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এর আগে বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় যে ৫২ পণ্য মানহীন ছিল, তার মধ্যে ৪২টি পণ্য পুনরায় মান পরীক্ষার জন্য আবেদন করেছিল। এর মধ্যে ২৬টি পুনঃপরীক্ষায় মানোত্তীর্ণ হয়েছে। তবে ১৬টি পণ্য নিম্নমানের হওয়ায় সেগুলোর লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে। বাকি ১০টি পণ্য এখনও নমুনা দেয়নি। একই সঙ্গে মান পরীক্ষায় বাকি ৯৩টি পণ্যের মধ্যে ২২টিকে মানহীন।

এর আগে সকাল ১০টায় বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় নিম্নমানের পণ্য বাজার থেকে সরিয়ে নেয়ার আদেশ বাস্তবায়ন না করায় তলবের পরিপ্রেক্ষিতে হাইকোর্টে উপস্থিত হন নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মাহফুজুল হক। এ সময় তিনি ক্ষমা প্রার্থনা করলে আদালত তার আবেদন মঞ্জুর করেন।

এর আগে বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় প্রমাণিত ৫২টি ভেজাল বা নিম্নমানের খাদ্যপণ্যের বিষয় নিয়ে গত ৯ মে হাইকোর্টে রিট করে কনসাস কনজ্যুমার সোসাইটি। সেই রিটের শুনানি নিয়ে ১২ মে হাইকোর্ট বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় প্রমাণিত ৫২টি নিম্নমানের পণ্য বাজার থেকে অবিলম্বে সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেন।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত