প্রস্তাবিত বাজেট ফ্যাক্ট : মোবাইলে ১০০ টাকার কথা বললে ২৭ টাকা কেটে নিবে সরকার

এবারের প্রস্তাবিত বাজেটে আবারও বেড়েছে মোবাইলে কথা বলার উপর ৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক। অর্থ্যাৎ ফোনালাপে গ্রাহকদের এখন থেকে আরও ৫ শতাংশ বেশি অর্থ খরচ করতে হবে। সহজভাবে, মোবাইলে ১০০ টাকা রিচার্জ করে যতক্ষণ কথা বলা যেত, এখন নতুন বাজেটের ফলে ততক্ষণ কথা বলতে লাগবে ১০৫ টাকা। তবে, সম্পূরক শুল্কের এই বিধান বাজেট পাশের পর থেকে অর্থাৎ আগামী ১ জুলাই থেকে কার্যকর হবে।

বর্তমানে মোবাইল ফোনে কথা বলার ক্ষেত্রে ১৫ শতাংশ ভ্যাট ও ৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপিত রয়েছে। এর সঙ্গে আরও ২ শতাংশ সারচার্জ আরোপিত রয়েছে। সব মিলে এ খাতে করের হার ২২ শতাংশ।

আরও পড়ুন>>> ১০০০ টাকা দিয়েই বৈধ করা যাবে স্বর্ণ

বর্তমানে মোবাইলে ১০০ টাকা রিচার্জ করে কথা বলার সময় এ থেকে ২২ টাকা কর হিসাবে কেটে নেয়া হয়। এই করের সঙ্গে প্রস্তাবিত বাজেটে মোবাইল ফোনে কথা বলার ওপর আরও ৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক আরোপ করা হয়েছে। ফলে এ খাতে সম্পূরক শুল্কের হার বেড়ে ১০ শতাংশে দাড়াচ্ছে। ভ্যাটের হার অপরিবর্তিত রয়েছে। এতে এই খাতে মোট করের হার দাঁড়াবে ২৭ শতাংশ।

অর্থাৎ মোবাইল ফোনে কথা বলার ওপর প্রস্তাবিত কর কাঠামো বহাল থাকলে আগামী ১ জুলাই থেকে কথা বলার খরচ বেড়ে যাবে। তখন প্রতি ১০০ টাকায় ২৭ টাকা কর দিতে হবে। এখন দিতে হয় ২২ টাকা। প্রসঙ্গত, মোবাইল ফোন থেকে সহজে কর আদায় সম্ভব বলে সরকার এ খাতে হাত বাড়িয়েছে। সরকারের পক্ষে মোবাইল কোম্পানিগুলো এসব কর কেটে নেবে। পরে মোবাইল কোম্পানিগুলোর কাছ থেকে সরকার এসব কর আদায় করে।

আরও পড়ুন…

পাঠকের মতামত