শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মাঠে নামার আগে টাইগার শিবিরে তিন দুশ্চিন্তা

বিশ্বকাপের আজ দিনের একমাত্র ম্যাচে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা। প্রথম ম্যাচে দারুণ এক জয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করে বাংলাদেশ। এরপরের ম্যাচে অবশ্য নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে হেরে গেলেও লড়াই করেছে বাংলাদেশ। কিন্তু সমালোচনার জন্ম হয় যখন ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১০৬ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরে যায় মাশরাফিরা।

অপরদিকে শ্রীলঙ্কারও এটি চতুর্থ ম্যাচ। প্রথম ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নেমে খুব বাজেভাবে হেরে যায় তারা। কিন্তু আফগানিস্তানের বিপক্ষে ঘুরে দাঁড়ায় তারা। শুরুতে ভালো করেও ২০১ রানে অলআউট হয়ে যাওয়া শ্রীলঙ্কা আফগানিস্তানকে বেধে ফেলে মাত্র ১৫২ রানে। কিন্তু পাকিস্তানের বিপক্ষে বৃষ্টির কারণে মাঠেই নামতে পারেনি শ্রীলঙ্কা। শেষমেশ পাক বাহিনীদের সাথে পয়েন্ট ভাগাভাগি করেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় সাঙ্গাকারার দেশটির।

তবে আবহাওয়া আজকেও সুখবর দিচ্ছে না। আজকের ম্যাচেও হানা দিতে পারে বৃষ্টি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে যাচ্ছেতাই ভাবে হারের পর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচের দিকে তাকিয়ে আছে সবাই। তাই এই ম্যাচ নিয়ে টাইগার অধিনায়ক মাশরাফির মাথায় আরও কিছু দুশ্চিন্তা ভর করেছে। তবে বৃষ্টি নিয়েই বেশি ভাবনা বাংলাদেশ অধিনায়কের।

সেমিফাইনালের খেলার আশা বাঁচিয়ে রাখার জন্য ম্যাচের পূর্ণ ২ পয়েন্টই চাই মাশরাফির দল। ‘পূর্ণ’ পয়েন্ট বলার কারণ হানা দিতে পারে বৃষ্টি। আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী আগামীকাল সারা দিন বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এর সঙ্গে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফির কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলে দিয়েছে খেলোয়াড়দের ছোট খাটো চোট ও শ্রীলঙ্কা বধের আবশ্যিক চাপ।

একই সাথে টাইগার দলপতিকে আরও দুইটি বিষয়ে চিন্তা করতে হচ্ছে। শ্রীলঙ্কা ম্যাচের আগে চোট ও চাপের চিন্তা থেকে কিছুটা হলেও বের হয়ে আসা সম্ভব। কিন্তু বৃষ্টির ওপর নেই কারও হাত। তাই মাশরাফির কণ্ঠে অসহায়ত্ব, ‘কাল বৃষ্টি হলে অনেক বড় সমস্যা আমাদের জন্য’। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বৃষ্টিতে ম্যাচ ভেসে গেলে পয়েন্ট টেবিলের হিসাবটা বড় কঠিন হয়ে যাবে, মাশরাফির কপালে চিন্তার ভাঁজ তো থাকবেই।

নিউজিল্যান্ড আর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টানা দুই ম্যাচ হারের পর বাংলাদেশ চোখ হাতুড়ে সিংহের দলের ওপর। লঙ্কানদের বিপক্ষে সাম্প্রতিক সময়ের দুর্দান্ত রেকর্ড আর কন্ডিশনটা যেহেতু দুই দলেরই অপরিচিত—বাংলাদেশ লক্ষ্য ঠিক করেছে, ম্যাচটা তাদের জিততেই হবে। এই আবশ্যিক জয়ের লক্ষ্যটা দলের ওপর চাপ বাড়িয়ে দিচ্ছে কি না? স্বাভাবিকভাবে প্রশ্নটা উঠেই যায়।

তবে এসব প্রশ্নের কূটনৈতিকভাবে ব্যাখ্যা দিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। তিনি বলেন – প্রতিটি ম্যাচেই চাপ থাকে। সব ম্যাচের মতো শ্রীলঙ্কা ম্যাচেও আছে। চাপ থাকবেই। আমি অস্বীকার করতে চাই না চাপ নেই। ১০০ ভাগ চাপ আছে। একই সঙ্গে আমি বলছি এই চাপ জয় করতে হবে। এবং দিন শেষে নিশ্চিত করতে হবে জয়।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচটিকে বাংলাদেশ ধরে নিয়েছে বাঁচা-মরার লড়াই হিসেবে। এমন গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের আগে দলে বেশ কিছু খেলোয়াড়ের চোট। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও সাইফউদ্দিনের সমস্যার কথা সবারই জানা। হাতের চোটের কারণে মাহমুদউল্লাহ তো বলই করতে পারছেন না। নিজেকে পুরোপুরি মেলে ধরতে পারছেন না সাইফউদ্দিনও। এ ছাড়া অন্যদের নিয়েও প্রশ্ন উঠছে মাঝে মাঝে।

তবে এই নিয়ে ভাবতে রাজি নন মাশরাফি – আয়ারল্যান্ড থেকেই দলে ছোট খাটো চোট আছে। তা সত্ত্বেও আমরা খেলে যাচ্ছি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছোট চোট থাকবেই। তা সত্ত্বেও খেলোয়াড়েরা নিজেদের সেরাটা দিয়ে যাচ্ছে। সুতরাং এই মুহূর্তে আমি চোট নিয়ে কোনো অভিযোগ জানাচ্ছি না।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত