“কখনো কোচিং সেন্টারে পড়লামই না, ছবি দিব কোন উদ্দেশ্যে”

কোচিং না করেও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীদের ছবি প্রসপেক্টাসে ব্যবহারের অভিযোগ পাওয়া গেছে ‘আশার
আলো’ কোচিং সেন্টারের বিরুদ্ধে। শুক্রবার রাতে পাওয়া প্রসপেক্টাসে ছবি দেখে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বললে তারা এর সত্যতা নিশ্চিত করেন।

প্রসপেক্টাসে ছবি থাকা গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী আফ্রিদি বলেন – কিছুদিন আগে আমিসহ আমার বিভাগের কয়েকজন বন্ধুর ছবি ঐ কোচিংয়ের প্রসপেক্টাসে দেখতে পাই। আমরা কখনই ওখানে কোচিং করিনি। আর আমাদের ছবি ব্যবহারের জন্য তারা অনুমতিও নেয়নি। আমাদের ফেসবুক প্রোফাইলের ছবি ব্যবহার করে প্রসপেক্টাসে ছেপেছে।

চিত্রকলা, প্রাচ্যকলা ও ছাপচিত্র বিভাগের শিক্ষার্থী লাবু হক বলেন – আমি এ কোচিংয়ের নাম আগে কখনও শুনিই নি। তাই তাদেরকে ছবি দেওয়ার প্রশ্নই আসে না। জানতে চাইলে আশার আলো কোচিংয়ের পরিচালক ওমর ফারুক সরকার বলেন – আমাদের আসিফ হাসান নামের এক শিক্ষক ছবিগুলো দিয়েছিলো। এজন্য ব্যবহার করেছি। কিছুটা ভুল হতে পারে সঠিক জানি না। আমি কথা বলে দেখছি।

আশার আলো কোচিংয়ের শিক্ষক আসিফ হাসান বলেন – আমাদের এটা প্রাইভেট প্রোগ্রাম। আমি তাদেরকে বলেই ছবি ব্যবহার করেছি। এর আগে কোচিং না করেও ইউসিসি কোচিংয়ের রাজশাহী শাখার প্রসপেক্টাসে রাবিতে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীদের ছবি ও নাম ব্যবহার করে প্রতারণার অভিযোগ
উঠে।

#তানভীর ইসলাম, রাবি প্রতিনিধি।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত