ইফতারে খেজুর খাওয়ার ১০টি উপকারিতা জেনে নিন

রমজানের ইফতারের খাবারের তালিকায় খেজুর নেই! এমনটা হতেই পারে না। সারাদিন রোজা রেখে সন্ধ্যায় খেজুর দিয়ে ইফতার করার অভ্যাস সবারই আছে। তাছাড়া হাদিস অনুযায়ী এটি হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর সুন্নত।

কিন্তু শুধু সুন্নত অথবা শখের বসে ইফতারে খেজুর রাখলেও এর পেছনে কিছু বৈজ্ঞানিক কারণ আছে। যেগুলো আমরা অনেকেই জানিনা। বলতে পারেন ইফতারে খেজুর খাওয়া একধরণের ওষুধ সরূপ কাজ করে।

সারাদিন রোজা রাখার ফলে আমাদের শরীরে কিছু ব্যাঘাত ঘটে। যেমন- গ্লুকোজের সল্পতা। আর এটি খুব দ্রুত পূরণ করতে খেজুর খুবই কার্যকর। তবে শুধু রমজান মাসে নয়, বছরজুড়েই নিয়মিত খেজুর খেতে বলছেন পুষ্টিবিদরা।

খেজুরের অনেকগুলো গুণাগুণের মধ্যে ১০ গুণ জেনে নেওয়া যাক:-

১. রক্তস্বল্পতায় ভুগছেন এমন মানুষকে প্রতিদিনই কয়েকটি করে খেজুর খাওয়ার নির্দেশনা দিচ্ছেন পুষ্টিবিদরা।

২. খেজুরে রয়েছে প্রচুর আয়রন। প্রতিদিন খেজুর খাওয়ার অভ্যাস দেহের আয়রনের অভাব পূরণ করে এবং রক্তস্বল্পতার হাত থেকে বাঁচায়।

৩. অনেকেরই খাওয়ার রুচি থাকে না। খেজুর রুচিবর্ধক একটি ফল। নিয়মিত খেজুর খেলে রুচি ফিরে আসবে নিশ্চিত।

৪. রমজানে সারা দিন রোজা রাখার ফলে খালি পেটে গ্যাস জমে। আর ইফতারে সবার আগে খেজুর চিবিয়ে খেলেই পেটের গ্যাস দূর হয়ে যায়।

৫. ঠাণ্ডায় বা বৃষ্টিতে ভিজে অনেকেই সর্দি-কফ বা শ্লেষ্মাজনিত সমস্যায় ভোগেন। সারা দিন রোজা রাখার কারণে দিনেরবেলায় এসব বিষয়ে দেহের পরিচর্যা করা যায় না। তাই ইফতারে খেজুরের পরিমাণ বাড়িয়ে দিলে তা ওষুধ হিসেবে কাজ করে। খেজুর কফ দূর করে, শুষ্ক কাশি এবং এজমায় উপকারী।

৬. পুষ্টিবিদরা জানিয়েছেন, শক্ত খেজুর পানিতে ভিজিয়ে সেই পানি খালি পেটে খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। তাজা খেজুর নরম ও মাংসল, যা সহজেই হজম হয়।

৭. হৃদযন্ত্রের জন্য বেশ উপকারী খেজুর। খাবার তালিকায় প্রতিদিন খেজুর রাখলে হৃদযন্ত্র ভালো থাকে। এ ক্ষেত্রে চিকিৎসা বিজ্ঞান বলেন, সারারাত খেজুর পানিতে ভিজিয়ে সকালে পিষে খাওয়ার অভ্যাস হার্টের রোগীর সুস্থতায় কাজ করে।

৮. খেজুরে প্রচুর ভিটামিন ও মিনারেল বিদ্যমান। প্রতিদিন শরীরের ক্ষয়রোধ করতে খেজুর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। খেজুরে থাকা প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও মিনারেল শরীরের প্রয়োজনীয় চাহিদা মেটাতে সাহায্য করে।

৯. ওজন কমাতে খেজুরের জুড়ি নেই। কারণ খেজুরে আছে ডায়েটরই ফাইবার, যা কলেস্টোরেল থেকে মুক্তি দেয়। ফলে ওজনকে না বাড়িয়ে সঠিক ও সুন্দর রাখতে খেজুর বেশ উপযোগী।

১০. প্রতিদিন খেজুর খেলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। পক্ষাঘাত এবং সব ধরনের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ অবশকারী রোগের জন্য খেজুর খুবই উপকারী।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত