আশংকাজন হারে বাড়ছে শিশু নির্যাতন, এক বছরে ৪৩৩টি শিশু ধর্ষণের শিকার

দেশে শিশুদের উপর নির্যাতনের মাত্রা আশংকাজনকভাবে বেড়ে চলেছে। সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেশে ৪৩৩টি শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে জানিয়েছে বেসরকারি সংস্থা ‘মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন’।

সম্প্রতি সংস্থাটি একটি প্রতিবেদন গণমাধ্যমে তুলে ধরেন। প্রতিবেদনের তথ্যানুযায়ী, ২০১৮ সালে সারাদেশে ধর্ষণ, যৌন নির্যাতন, হত্যা ও শারীরিক নির্যাতনের কারণে মারা গেছে ২৭১ শিশু। আর বছরটিতে কেবল ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৪৩৩টি শিশু। এছাড়াও বিভিন্ন ধরনের শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১ হাজার ৬ জন।

জাতীয় প্রেস ক্লাবে রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে দেশে ধর্ষণ, যৌন নির্যাতন, হত্যা ও শারীরিক নির্যাতনের এই পরিসংখ্যান প্রকাশ করে সংগঠনটি।ছয়টি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত সংবাদের তথ্য বিশ্লেষণ করে এ পরিসংখ্যান তৈরি করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠানটির প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর রাফিজা শাহীন শিশু নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরে জানান, ২০১৮ সালে ৪৩৩টি শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে।

সংস্থাটি পরিসংখ্যানে আরো উল্লেখ করে – ধর্ষণের শিকার হয়ে মারা গেছে ২২টি শিশু। যৌন নির্যাতনের ফলে মারা গেছে একজন। এছাড়াও ধর্ষণের চেষ্টা চালানো হয়েছিল ৫৩টি শিশুর ওপর। ২০১৮ সালে ধর্ষণের শিকার হওয়া বেশিরভাগ শিশুর বয়স ৭ থেকে ১২ বছর। ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সীরা বেশি হন যৌন নির্যাতনের শিকার।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে – বিশেষ করে পুরুষ শিক্ষকের হাতে এই ধরনের নির্যাতনের ঘটনা বেশি ঘটে। গত বছর এই সংখ্যা ছিল ১২৯ জন। এদের মধ্যে ১৭ জন ধর্ষণের শিকার হয়েছে। গত বছরে শিশুদের বিষয়ে এক হাজার ৩৭টি ইতিবাচক সংবাদ প্রকাশ হয়েছে। অন্যদিকে নেতিবাচক ঘটনায় সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে দুই হাজার ৯৭৩টি, যেখানে ক্ষতিগ্রস্ত শিশুর সংখ্যা ছিল ১৬ হাজার ৮১১ জন।

পাঠকের মতামত