চমকে দেওয়ার মত অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ স্কোয়াড!

২০১৫ সালের বিশ্বকাপে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ান হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। সেবার দলের জয়ে অন্যতম ভূমিকা রেখেছিলেন ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নার এবং স্টিভ স্মিথ। কিন্তু ২০১৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে অনুষ্ঠিত টেস্টে ‘বল টেম্পারিং’ কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে দুইজনই এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছিলেন। সাজার মেয়াদ শেষ হলেও অজিদের হয়ে আর মাঠে নামেননি তারা।

তবে আশ্চর্য্যজনকভাবে অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ দলে জায়গা পেয়েছেন ওয়ার্নার ও স্মিথ। তবে স্মিথ অধিনায়কত্ব ফিরে পাননি। এবারের বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়াকে নেতৃত্ব দিবেন আরেক ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ। স্মিথ-ওয়ার্নারের দলে ফেরা অনেকটাই নিশ্চিত থাকলেও সবথেকে অবাক করার বিষয় হল, পিটার হ্যান্ডসকম্বের দলে জায়গা না পাওয়া। সাম্প্রতিক সময়ে পিটার দুর্দান্ত ফর্মে আছেন।

এছাড়াও আরেক ব্যাটসম্যান অ্যাস্টন টার্নারও বিশ্বকাপের ১৫ সদস্যের দলে সুযোগ পাননি। গত বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য পেসার জশ হ্যাজলউডও বাদ পড়ে গেছেন। তবে হ্যান্ডসকম্ব আর টার্নার বাদ পড়লেও দুর্দান্ত ফর্মের কারণে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পেয়েছেন বাঁহাতি টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান উসমান খাজা। এ ছাড়া ওয়ানডেতে নিজের সেরা সময়ে থাকা আরেক বাঁহাতি শন মার্শও জায়গা ধরে রেখেছেন। দলে ব্যাটসম্যান হিসেবে আরো আছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ও ব্যাটিং অলরাউন্ডার মার্কাস স্টয়নিস। দলের একমাত্র উইকেটরক্ষক হিসেবে আছেন অ্যালেক্স ক্যারে।

তবে ইংলিশ কন্ডিশন বিবেচনায় বিশ্বকাপে শক্তিশালী বোলিং লাইনআপ নিশ্চিত করেছে অসিরা। পাঁচজন পেসার আছেন ঘোষিত দলে। দলে প্রত্যাবর্তন করেছেন অভিজ্ঞ মিচেল স্টার্ক। এ ছাড়া প্যাট কামিন্স, ঝাই রিচার্ডসন, জেসন বেরেনডর্ফ ও নাথান কোল্টার-নাইল পেস বোলিংয়ের দায়িত্ব সামলাবেন। টেস্টে নিয়মিত খেলা ডানহাতি অভিজ্ঞ অফস্পিনার নাথান লায়ন বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পেয়ে গেছেন। আর বিশেষজ্ঞ লেগস্পিনার হিসেবে রয়েছেন অ্যাডাম জাম্পা।

দল ঘোষণা করে নির্বাচক ট্রেভর হনস বলেন – দলে সুযোগ পাওয়া নিয়ে একঝাঁক প্রতিভাবান ক্রিকেটারের মধ্যে প্রতিযোগিতা হয়েছে। আমাদের কিছু কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়ে ১৫ জনের দল ঘোষণা করতে হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ স্কোয়াড:

অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), জেসন বেরেনডর্ফ, অ্যালেক্স ক্যারে (উইকেটরক্ষক), নাথান কোল্টার-নাইল, প্যাট কামিন্স, উসমান খাজা, নাথান লায়ন, শন মার্শ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, ঝাই রিচার্ডসন, স্টিভেন স্মিথ, মিচেল স্টার্ক, মার্কাস স্টয়নিস, ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যাডাম জাম্পা।

পাঠকের মতামত