মুস্তাফিজের চোট নিয়ে কি বললেন বিসিবি চিকিৎসক?

বিশ্বকাপের মাত্র আর অল্প কয়েক সপ্তাহ। কিন্তু এরই মধ্যে বাংলাদেশের খেলোয়াড়রা মাঠে নেমেছে চোট খাওয়ার প্রতিযোগিতায়। একে একে দলের গুরুত্বপুর্ণ খেলোয়াড়রা পড়ছে চোটের কবলে। আর তাতে সর্বশেষ যোগ হলেন মুস্তাফিজুর রহমান। মুস্তাফিজকে নিয়ে জাতীয় দলের মোট ৬ জন খেলোয়াড চোটের কবলে পড়েছেন।

বুধবার (১০ এপ্রিল) বিকালে ডিপিএলে শাইনপুকুরের হয়ে দারুন প্রত্যাবর্তন করেন তিনি। ম্যাচটা হেরে গেলেও তার বোলিংয়ে সন্তুষ্ট নির্বাচকরা। কিন্তু বিকেলে লীগটিমের সাথে অনুশীলন করতে গিয়ে বাঁ পায়ের গোঁড়ালিতে ব্যাথা পান তিনি।

এই চোটের কারণে অন্তত দুই সপ্তাহ বিশ্রামে থাকতে হবে মুস্তাফিজকে। অর্থাৎ প্রায় অর্ধ-মাস ক্রিকেট মাঠের বাইরে থাকবেন ‘কাটার মাস্টার’ খ্যাত এই ক্রিকেটার।

তবে চোটের পর করা এক্স-রে প্রতিবেদনে খুব বড় ধরনের কোন সমস্যা ধরা পড়েনি। তাই টিম ম্যানেজমেন্টও রয়েছে স্বস্তিতে। এ বিষয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী বলেন – মুস্তাফিজের এক্স-রে করা হয়েছে। রিপোর্ট ভালো আছে। আপাতত ও দুই সপ্তাহ বিশ্রামে থাকবে।

মুস্তাফিজের চোট পুনর্বাসন প্রক্রিয়া সম্পর্কে তিনি বলেন – আমরা একটু সাবধানে এগুবো। এর মধ্যে কেবল কয়েকবার ওর পায়ের টেপ পরিবর্তন করে দেওয়া হবে।

Untitled

ছবি: বাঁ পায়ে ব্যান্ডেজ পড়ে আছেন মুস্তাফিজ। (ছবি: সংগৃহীত।)

তবে সমস্যাটা হচ্ছে পুরনো চোটের জায়গায় আবারো চোট পেয়েছেন দ্য ফিজ। ২০১৮ সালে আইপিএলে মুম্বাইয়ের হয়ে খেলতে গিয়ে যেখানে চোট পেয়েছেন, গতকালের চোটও ঠিক একই জায়গায় লেগেছে। চোট পাওয়ার পর থেকে হাঁটতে কিংবা স্বাচ্ছন্দে নড়াচড়া করতে পারছেন না মুস্তাফিজ। যদিও আইপিএলের সেই চোটের চেয়ে এবারের চোট কম গুরুতর বলে ধারণা করা হচ্ছে।

চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানিয়েছেন, দুই সপ্তাহের চেয়েও কম সময়েও সেরে উঠতে পারেন মুস্তাফিজ। তবে সামনে বিশ্বকাপ বলে কোনো ঝুঁকি না নিয়ে আগামী ১৪ দিন তাকে খেলা থেকে দূরে রাখতে চান তারা।

দেবাশীষ বলেন – অন্য সময় হলে হয়তো আমরা আরও কম সময় নিতাম। কিন্তু সামনে যেহেতু বিশ্বকাপ, আমরা তাই একটু বেশি সময় নিবো।

প্রসঙ্গত, গত বছর আইপিএলে চোট পাওয়ার পর বাংলাদেশ দলের হয়ে বেশ কয়েক মাস খেলতে পারেননি মুস্তাফিজ। সামনে বিশ্বকাপ বলে তার নতুন চোট জাগাচ্ছে শঙ্কা।

পাঠকের মতামত