গোপনে মসজিদ ভাঙছে চীন, ধরা পড়লো স্যাটেলাইটে

চীনের সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিমদের উপর  নির্যাতন শুরু হয়েছে অনেক আগ থেকেই। কিন্তু সেটি প্রথমে গোপন থাকলেও বর্তমানে সেটি প্রকাশ্যে চলে এসেছে। এ তীব্র চীন সরকারের বিরুদ্ধে অনেক সমালোচনাও চলছে। আর এই সমালোচনার মাঝেই মুসলিমদের মসজিদ ভাঙার তথ্য পাওয়া যায়।

চীনা সরকার মুসলিম জিনজিয়াং স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের ল্যান্ডমার্ক মসজিদের সুসংগতভাবে ধ্বংস করছে যা সামাজিক কর্মীদের পোস্ট করা স্যাটেলাইট ছবিতে দেখা যায়। খবর ইয়েনি শাফাক।

দুজন বিশিষ্ট কর্মীর পোস্ট করা টুইটারে দেখা যায়, জিনজিয়াংয়ের ল্যান্ডমার্কের অনন্ত দুটি মসজিদের চিত্র দেখা যায়, যেখানে মসজিদের আগের চিত্র ও পরের চিত্র দেয়া হয়েছে। এসব ছবি স্যাটেলাইট থেকে ধারণকৃত। এতে প্রমাণ হিসেবে ধ্বংসের আগের চিত্রের সঙ্গে পরের চিত্রের তুলনা দেখানো হয়।

ধ্বংসপ্রাপ্ত কেরিয়া আতিকিকা মসজিদ হোটান শহরে অবস্থিত। যেটি ৮০০ বছরের পুরনো। মসজিদটি ১২৩৭ সালে নির্মিত হয়েছিল। মসজিদটিকে ২০১৭ চীনা স্থাপত্য ঐতিহ্য হিসেবে ঘোষণা করে। অনির্ভরযোগ্য একটি সূত্রের দাবি, কারগিলিক মসজিদটি ইতিমধ্যেই চীনা সরকার ভেঙে ফেলেছে।

এদিকে, গত সেপ্টেম্বরে মানবাধিকার সংস্থা প্রতিবেদন অনুযায়ী, জিনজিয়াংয়ে মুসলিম উইঘুর সংখ্যালঘুদের ওপর চীনা সরকার পদ্ধতিগতভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘন করছে বলে অভিযোগ তোলা হয়।

পাঠকের মতামত