আমারএম‌পি ডটকম’র পেজ ভে‌রিফাইড কর‌লো ফেসবুক

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আমারএমপি ডটকম’র (amarmp.com) ফেসবুক পেজ ভেরিফাইড করেছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। এখন থেকে পেজটিতে নীল রঙের ভেরিফাইড টিক চিহ্ন দেখা যাবে।

শুক্রবার (৫ এপ্রিল) আমারএমপি ডটকমের ফেসবুক পেজটি অফিসিয়ালী ভেরিফাইড করা হয়। ফেসবুক পেজ ভেরিফাইড হওয়ায় আমারএমপি ডটকমের অ্যাম্বাসেডর ও শুভাকাঙ্খিরা অভিনন্দন জানাচ্ছেন।

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে কথা হয় আমারএমপি ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা প্রকৌশলী  সুশান্ত দাস গুপ্তের সাথে। তিনি বলেন – কাজ করলে সফলতা আসবেই। ‘আমারএমপি’ বিশ্বের একমাত্র সামাজিক মাধ্যম যেখানে কোন দেশের সব এমপি’র সাথে জনগন সরাসরি প্রশ্ন করতে পারে। অনেক বাঁধা বিপত্তি এসেছে, এগুলা পেরিয়েই আমারএমপি এগিয়ে যাবে। ফেইসবুক ভেরিফিকেসন হয়তো এরই একটি ক্ষুদ্র উদাহরণ।

বাংলাদেশের সংসদ সদস্যদের দায়িত্ব, কাজের স্বচ্ছতা ও দায়বদ্ধতা প্রচারের জন্য স্বেচ্ছাসেবী সমাজকল্যাণ সংস্থা (নিবন্ধন ও নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০১৬ (পুনর্গঠিত খসড়া) এর অধীনে তফসিল {ধারা ২(৭)} এর নিম্নলিখিত শ্রেণিতে আমারএমপি ডটকম স্বেচ্ছাসেবী সমাজকল্যাণ সংস্থা প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি সংবিধান এবং আইন স্বীকৃত অধিকারসমূহের সংরক্ষণ ও উন্নয়ন এবং ‘গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি এবং নির্বাচন পর্যবেক্ষণ’।

এর আগে, নয়াদিল্লীতে ‘এমবিলিয়নথ এ্যাওয়ার্ড গালা ২০১৭’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে সরকারি ও নাগরিক কাজে সম্পৃক্ত থাকার কারণে বাংলাভাষা ভিত্তিক ওয়েবসাইট হিসেবে ‘এমবিলিয়নথ এ্যাওয়ার্ডস-২০১৭’-এর মনোনয়ন তালিকায় স্থান করে নিয়েছিলো ‘আমারএমপি ডটকম’। এছাড়াও্, ইন্টারন্যাশনাল স্টার এওয়ার্ড ফর কোয়ালিটির ১৮ তম আন্তর্জাতিক সম্মেলনে আমার এমপি ডটকম গোল্ড ক্যাটাগরিতে মনোনীত হয়েছিলো। ‌‌‌

এমপিকে প্রশ্ন করা যাবে তা ছিল একসময় কল্পনাতীত। আবার সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়ে উন্নয়ন সংক্রান্ত কাজে ঝাপিয়ে পড়বেন এমপি- তা ছিল অলীক স্বপ্ন। তবে দেশের যেকোন নাগরিক এই ওয়েবসাইটটির মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী আসনের সংসদ সদস্যের সাথে যোগাযোগ করতে পারবেন, জানাতে পারবেন বিভিন্ন সুবিধা-অসুবিধার কথাও। প্রশ্ন করার পর সংসদ সদস্যের কাছ থেকে উত্তরও পাওয়া যাবে এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে অনানুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা হওয়া এই প্রতিষ্ঠানটির ওয়েবসাইটে এখন পর্যন্ত ২০০ এর অধিক এমপি সংযুক্ত হয়েছেন। সাইটটি ব্যবহার করে জনগণ তাদের স্ব স্ব এলাকার জনপ্রতিনিধির কাছে ১০০০ এর বেশি প্রশ্ন করেছে। এর ৫০ শতাংশ প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন এমপিরা, যার বেশিরভাগই কোনও না কোনওভাবে উন্নয়ন প্রকল্প বা সমস্যা সম্পর্কিত। পরীক্ষামূলকভাবে এক বছর আগে চালু হলেও ১৬ জানুয়ারি ২০১৮ উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে ‘আমারএমপি ডটকম’(amarMP.com) আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যক্রম শুরু করছিলো।

আইসিটি বিভাগ জানায়, আমারএমপি ডটকম কাগজে-কলমে ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতে শুরু হলেও কার্যক্রম শুরু হয়েছিলো বেশ কয়েক বছর আগেই। আমারএমপি ডটকম সম্প্রতি সময়ে আইসিটি বিভাগ থেকে সহযোগিতা পেয়েছে। এমপি দের সঙ্গে নাগরিকের দূরত্ব ঘোচানো এবং জনগণকে সংযুক্ত রেখে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এ প্ল্যাটফর্ম চালু হচ্ছে বলেও জানান আইসিটি বিভাগের কর্মকর্তারা।

২০১৭ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর আমারএমপি ডটকমের কার্যক্রম চালিয়ে যেতে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ কর্তৃক অনাপত্তিপত্র দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, আমারএমপির প্রতিষ্ঠাতা সুশান্ত দাস গুপ্ত বাংলাদেশের ২য় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব যার নিজের ফেইসবুক পেজ ভেরিফাইড হয়েছিলো। আর এই বাংলাদেশে এই পেজ ভেরিফিকেশন শুরু হয়েছিলো প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের হাত ধরে।

পাঠকের মতামত