কাতার বিশ্বকাপের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিচ্ছে ফ্রান্স

আগামী ২০২২ সালের বিশ্বকাপ ফুটবল অনুষ্ঠিত হবে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতারে। আর এ নিয়ে কাতারও শুরু করে দিয়েছে নানা আয়োজন। নতুন নতুন স্টেডিয়াম তৈরীসহ আরো নানা কর্মসূচী। এরমধ্যে ২০২২ সালের বিশ্বকাপ ফুটবল আয়োজনের প্রস্তুতি প্রায় শেষ হয়ে এসেছে।

এদিকে, বিশ্বকাপের জন্য নিরাপত্তা বিষয়ক এক চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে কাতার ও ফ্রান্স। গতকাল শুক্রবার কাতারের রাজধানী দোহায় দুই দেশের মধ্যে বৈঠক শেষে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

২০২২ বিশ্বকাপের প্রস্তুতি ও টুর্নামেন্টের নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনায় কৌশলগত পার্টনারশিপ গড়ে তোলার লক্ষ্যে এই চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত আর কিছু জানানো হয়নি। কাতারি প্রধানমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহ বিন খালিফা আল-থানি এবং ফরাসি প্রধানমন্ত্রী এডুয়ার্ড ফিলিপের মধ্যে বৈঠকের পর চুক্তির বিষয়টি ঘোষণা করা হয়।

অবশ্য ২৪ ঘণ্টা আগে দোহায় ফরাসি-নকশায় নির্মিত কাতারের জাতীয় জাদুঘরের উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফ্রান্সের সাবেক রাষ্ট্রপতি নিকোলাস সারকোজি।

অপরদিকে, কাতার বিশ্বকাপে ৪৮ দল নিয়ে আয়োজন করতে চায় ফিফা। আয়োজক কাতার রাজি হলেই ২০২২ বিশ্বকাপ ৪৮ দল নিয়ে আয়োজন হবে বলে বেশ কিছুদিন আগে জানিয়েছে ফিফা।

২০২২ বিশ্বকাপে ১৬টি দল বাড়ানো যায় কি না, সে বিষয়ে পরীক্ষা করছে ফিফা। বিশ্বকাপ সাধারণত ৩২ দিনের হয়ে থাকে। তবে মধ্যপ্রাচ্যে প্রথমবার অনুষ্ঠিতব্য বিশ্বকাপ হবে ২৮ দিনে। কাতারের টুর্নামেন্টের দিনক্ষণ বাড়ানো সম্ভব নয় বলে এর আগেই জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। তাই বিকল্প হতে পারে সহআয়োজকের বিবেচনা করা। ২০২২ সালের নভেম্বর-ডিসেম্বরে হবে এই টুর্নামেন্ট। অবশ্য সম্প্রতি কাতারের সঙ্গে মধ্যপ্রাচ্যের অন্য দেশগুলোর সম্পর্ক খুব একটা ভালো যাচ্ছে না।

এদিকে, ৪৮ দলের বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে ২০২৬ আসরে। যৌথভাবে যুক্তরাষ্ট্র, মেক্সিকো ও কানাডায় আয়োজন করা হবে আসরটি।

পাঠকের মতামত