খালেদার কারাগার দিবসের ১ বছর : নতুন করে ভাবছে নেতারা, সরকার দেখাচ্ছে আদালত

ফাইল ফটো।

আজ খালেদা জিয়ার কারাগারে যাওয়ার এক বছর পুর্ণ হয়েছে। গতবছরের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরাফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাগারে যান বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া।

এই এক বছরে দলের অন্যান্য নেতারা আইনি লড়াইয়ে সুবিধা করতে পারেনি। আন্দোলন করেও তেমন কোন অবস্থান তৈরি করতে পারেনি। তার উপর আন্দোলন করে নির্বাচনে গিয়ে ভরাডুবি।

খালেদা জিয়াকে মুক্তি করে আনার ব্যাপারে বিএনপির শীর্ষ নেতারা বলছেন, গণ আন্দোলনের মাধ্যমেই মুক্ত করা হবে নেত্রীকে।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বলেন – খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার জন্য যে ধরনের আন্দোলন বিএনপি করার উচিত ছিল, তা আমরা এখনো করতে পারিনি। তবে ভবিষ্যতে আমরা খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার জন্য আন্দোলনে নামবো। যদি আমরা ব্যর্থ হয়, তবে দেশে জঙ্গিবাদের সৃষ্টি হবে।

খালেদা জিয়ার শাস্তির ব্যাপারে আওয়ামী লিগ সরকারের শির্ষস্থানীয় নেতারা বলছেন, আন্দোলন করতে ব্যর্থ বিএনপির আশ্রয় আদালতই। খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য গণ আন্দোলনের কোন চাপ নেই, তাই আদালতই তাদের একমাত্র ভরসা।

এদিকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন – এক বছরে কেন তাকে আন্দোলন করতে পারেনি? খালেদা জিয়াকে কারাগারে নিয়েছে আদালত, শাস্তিও তারাই দিয়েছে।

সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন – সরকার কারও দায় নেবে না। সরকার কাউকে জেলে দেয়নি। তবে এখনও সময় আছে, অভিমান ভুলে সবাই মিলে সংসদে যান। সংসদকে কাঁপিয়ে দিন।

ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন – ১৪ দলীয় জোটের আরেক শীর্ষ নেতার দাবি সঠিক দিক নির্দেশনার অভাবেই দিশেহারা দলটি। যে ভুলগুলো তারা করেছে, সেগুলোরই মাশুল দিচ্ছে তারা।

পাঠকের মতামত