গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস করেছে ফেসবুক

বছরের পর বছর ধরে গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস করেছে ফেসবুক। মার্কিন গণমাধ্যম নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে এমনটিই বলা হয়েছে।

২৭০ পৃষ্ঠার অভ্যন্তরীণ নথি বিশ্লেষণসহ ফেসবুকের ৫০ জন কর্মীকে সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে এ প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে নিউ ইয়র্ক টাইমস।

এতে বলা হয়েছে, মাইক্রোসফট, অ্যামাজন, নেটফ্লিক্স ও স্পটিফাই-এর মত সংস্থাগুলিকে গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্য দিয়েছে ফেসবুক। মাইক্রোসফটের সার্চ ইঞ্জিন বিংকেও ফেসবুক ব্যবহারকারীদের বন্ধুদের তালিকা দেখার অনুমতি দেয়া হয়েছে গ্রাহকদের অনুমতি ছাড়াই। অ্যামাজন ব্যবহারকারীদের নাম ও অন্য ব্যক্তিগত তথ্যও চালান করেছে ফেসবুক, জানা গিয়েছে নিউ ইয়র্ক টাইমসের ওই রিপোর্টে।

ফেসবুক প্রায় ১৫০টি প্রযুক্তিভিত্তিক সংস্থাকে গ্রাহকদের তথ্য দিয়েছে। নিউ ইয়র্ক টাইমসের অভিযোগ, অংশীদারদের সঙ্গে গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য বিনিময়ে ফেসবুকের নিজস্ব গোপনীয়তা বিধি ক্ষুণ্ণ হয়েছে।

এ নিয়ে ফেসবুকের গোপনীয়তা ও জননীতি পরিচালক স্টিভ স্ট্যাটারফিল্ড এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তাদের কোনও অংশীদারই গ্রাহকের গোপনীয়তা বা এফটিসি সমঝোতা লঙ্ঘন করেনি। তিনি বলেন, উভয় পক্ষের মধ্যে হওয়া সমঝোতায় তারা (অংশীদাররা) ফেসবুকের নীতি মেনে চলতে বাধ্য ছিল।

প্রসঙ্গত, এর আগে এ বছরের শুরু থেকেই ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা কেলেঙ্কারিতে টালমাটাল ছিল ফেসবুক। তখন প্রশ্ন উঠেছিল ফেসবুকের গ্রাহকদের তথ্যের সুরক্ষা নিয়ে। এবার নতুন এক বিতর্কে আবারও যোগ হয়েছে ফেসবুকের নাম।

আরো পড়ুন>>>আওয়ামী লীগে যোগ দিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ইনাম চৌধুরী

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত