গ্যাস সিলিন্ডার ব্যাবহারের আগে এবং পরে করণীয়

এখন রান্নার সুবিধার জন্য প্রায় প্রত্যেক পরিবারেই দেখা যায় সিলিন্ডার গ্যাস। তাছাড়া যেসকল এলকায় এখনো গ্যাসলাইন যায়নি সেসকল এলাকায় সিলিন্ডার গ্যাসের বিকল্প কিছু চিন্তাও করা যায়না।

লাকড়ির চুলা ব্যাবহারের ফলে গাছ কাটা হচ্ছে প্রচুর এতে করে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সৃষ্টি হচ্ছে। তাই পরিবেশের কথা খেয়াল করে মানুষ এখন সিলিন্ডার গ্যাসের দিকে বেশি মনোযোগী হচ্ছে।

কিন্তু সিলিন্ডার গ্যাসের সঠিক ব্যাবহার না জানার কারণে বিপদের সম্মুখিন হচ্ছে অনেকেই। এছাড়া গ্যাস সিলিন্ডার বিষ্ফোরণে মৃত্যুসহ ঘটছে নানা ধরণের বড় বড় দুর্ঘটনা।

তাই গ্যাস সিলিন্ডার ব্যাবহারের আগে এবং সিলিন্ডারে রান্না করার পরে কিছু ব্যাপার অবশ্যই খেয়াল রাখবেন।

গ্যাস সিলিন্ডার ব্যাবহারে পরে করণীয়:

গ্যাসের সিলিন্ডার সবসময় সমতল স্থানে বসাবেন, গ্যাস নজেল যাতে সিলিন্ডারের উপরের দিকে থাকে।

সিলিন্ডার পুরাতন হলে পরিবর্তন করে নিন, অথারাইজড ডিস্ট্রিবিউটর থেকে নতুন সিলিন্ডার নিন। কখনোই রিফেয়ার করা সিলিন্ডার ব্যাবহার করবেন না।

রান্নাঘরে প্রবেশের পর যদি গ্যাসের তীব্র গন্ধ পান, তাহলে দ্রুত রান্নাঘর থেকে বের হয়ে যান। এসময় ঘরের বৈদ্যুতিক কোনকিছু চালু করবেন না।

সিলিন্ডারে ক্ষুদ্র কোন সমস্যা চোখে পড়লেও দৃষ্টিগোচর করবেন না। ঠিক করে নিন অথবা সিলিন্ডার পালটিয়ে ফেলুন।

সিলিন্ডার ব্যাবহারের পূর্বে নজেল ঠিকমত লাগানো আছে কিনা ভালো করে দেখেনিন।

গ্যাস সিলিন্ডার ব্যাবহারের পূর্বে করণীয়:

গ্যাসেরলাইন ভালো করে বন্ধ করুন, প্রয়োজনে নজেলের চাবি বন্ধ করে দিন।

সিলিন্ডার পাইপ কখনো সাবান দিয়ে পরিষ্কার করবেন না, শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে নিন। অতিরিক্ত ময়লা হলে, ঠান্ডা পানি দিয়ে দিয়ে ধূয়ে কাপড় দিয়ে মুছে নিন।

রান্না করার সময় দেখবেন পাইপ যাতে চূলার গরম অংশের সাথে না লেগে থাকে। গ্যাস পাইপ চুলার থেকে নিরাপদ দূরত্বে রাখুন। সিলিন্ডারের জন্য উন্নতমানের পাইপ ব্যাবহার করুন।

গ্যাস পাইপ পরিষ্কার করার সময় কখনো গ্যাসের পাইপের গায়ে কোনো কাপড় বা প্লাস্টিক দিয়ে মুড়িয়ে রাখবেন না। এমন করলে পাইপ থেকে গ্যাস লিক হলে ধরা পড়বে না। একই পাইপ বছরের পর বছর ব্যবহার না করে প্রতি দুই থেকে তিন বছর পরপর বদলে ফেলুন।

গ্যাসের রেগুলেটরের নজেল ভালো করে পাইপ দিয়ে ঢেকে রাখুন। গ্যাস বন্ধ করে বেরনোর আগে দেখে নিন গ্যাসের পাইপ যেন কোনোভাবে গরম বার্নারের গায়ে লেগে না থাকে।সিলিন্ডার গরম হতে পারে এমন কোনো কাজ করবেন না।

অনেকেই গ্যাসের রেগুলেটর বা দেশলাই ব্যবহারের পর অবহেলার সঙ্গে সিলিন্ডারের উপরেই সেটি রেখে দেন। এই দুটি জিনিসের মধ্যে দূরত্ব বজায় রাখুন।

এছাড়া বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী নিয়মিতভাবে সিলিন্ডার ও যন্ত্রাংশের পরীক্ষা করা উচিত। একজন এলপিজি সিলিন্ডার ব্যবহারকারী হিসাবে প্রথমেই দেখুন সিলিন্ডারে কোন অংশ দেবে গিয়ে টোল বা গর্ত মত আছে কিনা। যাকে ইংরেজীতে ডেন্ট (dent) বলে।

সিলিন্ডারের গায়ে মরচে বা জং ধরেছে কিনা পরীক্ষা করুন। সিলিন্ডারের নির্দিষ্ট মেয়াদকাল রয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করুন। মেয়াদ শেষ হয়ে আসলে, বদলে নিন। সাধারণত মেয়াদকাল সিলিন্ডারের তলায় লেখা থাকে। প্রয়োজনে অনুমোদিত অভিজ্ঞ লোক দ্বারা সিলিন্ডার পরীক্ষা করিয়ে নিন। এছাড়া, সংযোগকারী পাইপটি দৃশ্যত ঠিক আছে কিনা পরীক্ষা করুন। ইঁদুরের কামড়ের দাগ দেখতে পেলে, অতিসত্ত্বর বদল করে নিন।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত