মহাকাব্যিক ডাবল সেঞ্চুরির পরের ইতিহাস

ঢাকা টেস্টের ২য় দিনটি সম্পূর্ণ নিজেদের করে নিলো বাংলাদেশ টাইগাররা। মমিনুলকে নিয়ে প্রথমদিনের চাপ সামলে দ্বিতীয় দিনেও অনন্য টাইগার রান মেশিন মুশফিক। আজ নিজের দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরি পূরণ করার পাশাপাশি টেস্ট ক্রিকেটে প্রথম উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরি করার অনন্য নজির গড়েন তিনি।

৫ উইকেটে ৩০৩ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে মাহমুদুল্লাহ ও মুশফিক। ৩৭২ রানে ৩৬ রান করে মাহমুদুল্লাহ ফিরে গেলেও আগেরদিন সেঞ্চুরি পূরণ করা মুশফিক ক্রিজে দাঁড়িয়ে থাকেন ‘দি ওয়াল’ হয়ে। অভিষিক্ত আরিফুল ৪ রানে আউট হয়ে যাওয়ার পর মেহেদী মিরাজের সাথে দারুন এক পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন মুশফিক। ক্রিজে আটকে থেকে নিজের ২য় ডাবল সেঞ্চুরি পূরণ করেন মুশফিক।

এই ডাবল সেঞ্চুরি করে কয়েকটি রেকর্ড ভাঙেন মুশফিক। বাংলাদেশের হয়ে টেস্টে সর্বোচ্চ একক ইনিংস এখন মুশফিকের। পেছনে ফেললেন সাকিব আলা হাসানের ২১৭ রান। এছাড়া বলের হিসেবে এটি টেস্টে বাংলাদেশের সবথেকে লম্বা ইনিংস। বলের পাশাপাশি সময়ের দিক থেকেও এটি এখন সবথেকে লম্বা একক ইনিংস। মুশফিক ৫৪৬ মিনিট ক্রিজে থেকে পেছনে ফেলেছেন আমিনুল ইসলাম বুলবুলকে। মুশফিক অনন্য হয়ে গেলেন আরো এক জায়গায়। চলতি বছর টেস্ট ক্রিকেটে এটাই প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি।

যদিও ডাবল সেঞ্চুরিটা প্রথম নয় মুশফিকের জন্য। কিন্তু হোম অব ক্রিকেটে দ্বিতীয় ডাবল সেঞ্চুরির মাহাত্ম্যটা যেন অন্যরকমই মিস্টার ডিপেনডেবেলের জন্য। কেননা দেশের মাটিতে প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি বলে কথা। উদযাপনে যার স্পষ্ট প্রমাণ। নির্ভতার আরেক নাম যে মুশফিক, সেটা আবারো প্রমাণিত। আর তাইতো ডাবল সেঞ্চুরির অপেক্ষাটা ছিল অপেক্ষাটা ছিল চা বিরতির আগে থেকেই। চা বিরতির পর মিরপুরের দর্শকদের উল্লাসে মাতান। সিকান্দার রাজাকে পুল করে এক রান নিয়ে পূর্ণ করেন ডাবল সেঞ্চুরি।

উল্লেখ্য, জিম্বাবুয়ে ১ উইকেটে ২৫ রান করে ২য় দিন শেষ করে। একমাত্র উইকেটটি নেন প্রথম ম্যাচে দুর্দান্ত বোলিং করা তাইজুল ইসলাম। ব্রায়ান চেরী এবং রোনাল্ড তিরিপানো দিন শেষে অপরাজিত ছিলেন।

Agami Soft. - Inventory Management System

পাঠকের মতামত