ভোলায় ৪টি এনার্জি বাল্বের বিদুৎ বিল এসেছে ৮৩৬৫ টাকা

ভোলার লালমোহনে ১৮ ওয়াটের ৪টি বাল্বের পল্লী বিদ্যুৎ অক্টোবর মাসের বিল উঠেছে ৮ হাজার ৩৬৫ টাকা।

অদ্ভূত এমন কারেন্ট বিল করা হয়েছে লালমোহন উপজেলার ফরাজগঞ্জ ইউনিয়নের কিরোগঞ্জ এলাকার মিজানুর ও মোতাহার নামের দুই গ্রাহকের নামে। এদের মধ্যে মোতাহারের নামে বিল করা হয়েছে অক্টোবর মাসে ৬০৫ ইউনিট, বিল চার হাজার ৫১২ টাকা। আর মিজানের নামে অক্টোবর মাসে ৫৪১ ইউনিট বাবদ বিল উঠেছে তিন হাজার ৮৫৩ টাকা। এ ঘটনা নিয়ে উপজেলার বিদ্যুৎ গ্রাহকদের মাঝে চরম ক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

মিজানুর রহমান বলেন, ২টি এনার্জি বাল্ব ব্যবহার করার জন্য পল্লী বিদুৎ অফিস থেকে এক মাসের বিল পাঠিয়েছে ৩ হাজার ৮৫৩ টাকা। যা আমার পুরো মাসে সংসার চালানোর খরচ। তার মতো অনেক গ্রাহককেই লালমোহন পল্লী বিদ্যুৎ অফিস হয়রানি করছে।

গ্রাহক মোতাহার জানান, দিনমজুরের কাজ করি। বিদ্যুৎ বিলের কথা চিন্তা করে ঘরে ফ্যান পর্যন্ত লাগায় নি। সাশ্রয়ী হিসেবে ২টি এনার্জি বাল্ব জ্বলে। রাতের অধিকাংশ সময় বন্ধ রাখা হয়। ২টি এনার্জি বাল্বের বিদ্যুৎ ব্যবহারের পরিমাণ দেখানো হয়েছে ৬০৫ ইউনিট। আর এর মূল্য দেখানো হয়েছে ৪ হাজার ৫১২ টাকা। পল্লী বিদ্যুৎ অফিস ভুয়া বিল করে পাঠিয়েছে। যেখানে পল্লী বিদ্যুতের এই বিলের বিষয়ে অফিসে অভিযোগ জানালেও প্রতিকার পাচ্ছেন না বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে লালমোহন উপজেলা পল্লী বিদ্যুতের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার এ.এস.এম. শাহিন আহসানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ওই গ্রাহকদের অভিযোগ দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। অভিযোগ পেলে বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

#জুবায়ের চৌধুরী পার্থ, ভোলা প্রতিনিধি।

পাঠকের মতামত