রাত ৮টা বাজলেই অতিরিক্ত ভাড়া গুনতে হয়

সিরাজগঞ্জের  সদানন্দপুর (কাড্ডার মোড়) থেকে অধিকাংশ সিএনজি  বেলকুচি-এনায়েপুর রোডে  চলাচল করে।

সারাদিন সিএনজি চালিয়ে যে আয় হয়, তাতে চালকদের সংসার খুব ভালোভাবেই চলে যায়। কারণ, বাসের পাশাপাশি সিএনজির যাত্রীও অনেক বেশি। এনায়েতপুর থেকে সদানন্দপুর(কাড্ডার মোড়) নির্ধারিত  ভাড়া ৪০ টাকা আর বেলকুচি থেকে ৩০ টাকা। এটাকে যাত্রীরা স্বাভাবিক মনে করে সিএনজিতে চলাচল করেন।

কিন্তু রাত ৮টা বাজলেই শুরু হয়ে যায় সিএনজি চালকদের বাহানা। এই সময় সদানন্দপুর (কাড্ডার মোড়) থেকে বেলকুচির ভাড়া হয় ৫০-৬০ টাকা। আর এনায়েতপুরের ভাড়া ৭০-৮০ টাকা এর কম হলে চলবে না চালকদের।

নির্ধারিত ভাড়া থেকে ভাড়া বেশি হওয়া সত্ত্বেও যাত্রীরা উঠছে সিএনজিতে। কারণ তাদের গন্তব্যস্থলে যেতেই হবে।

চালকরা এই ভাড়াকে অতিরিক্ত ভাড়া মনে করছেন না। তারা বলেন, রাত একটু বেশি হলে ভাড়া তো একটু বেশি হবেই এটা আমরা যাত্রীদের কাছ থেকে বকশিশ হিসেবে নিয়ে থাকি।

তবে যাত্রীরা বলছে, এটা বকশিশ নয় এটা যাত্রীদেরকে রীতিমত হয়রানি করা। তাদের দাবি, সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসক যেন এই বিষয়টির ওপর নজর দেন। এতে সাধারণ যাত্রীদের ভোগান্তি অনেকটাই কমে যাবে।

#মোঃ আল রাসেল,  বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি।

পাঠকের মতামত