মানুষের কল্যাণে কাজ করাই আমার লক্ষ্য -মুরাদ সিদ্দিকী

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মননোয়ন প্রত্যাশী জননেতা মুরাদ সিদ্দিকী বলেছেন, নির্বাচনের আগে অনেকেই জনগণকে স্বপ্ন দেখায়। নির্বাচিত হওয়ার পর সেই স্বপ্ন আর বাস্তবায়ন হয়না। পাশাপাশি রাস্তাঘাট ও সমাজের উন্নয়ন তেমনটা হয়নি। আমি আপনাদের আপনজন। আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক। মানুষের কল্যাণে কাজ করাই আমার মূল লক্ষ্য। ইতিমধ্যে টাঙ্গাইল হতে মাদক ব্যবসায়ী, ভূমিদস্যু ও হত্যাকারীদের বিতাড়িত করেছি। আগামীতে নির্বাচিত হলে টাঙ্গাইলকে একটি আধুনিক শহরে রুপান্তর করবো।

নাগরিক কমিটির জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে স্থানীয় শহীদ স্মৃতি পৌরউদ্যানে নাগরিক কমিটির উদ্যোগে এ জনসভার আয়োজন করে।

তিনি বলেন, ১৫ আগস্ট ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে সহপরিবারে হত্যা করা হয়। ওই সময়ে দেশের মানুষ বঙ্গবন্ধু হত্যার প্রতিবাদ করারও সাহস পায়নি। বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর নেতৃত্বে তৎকালীন বঙ্গবন্ধুর হত্যার প্রতিবাদসহ হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করা হয়। বঙ্গবন্ধুর পরিবারে সঙ্গে আমার পরিবারে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আপনাদের দোয়া ও সহযোগিতায় আগামী নির্বাচনে আমি নির্বাচিত হলে টাঙ্গাইল থেকে মাদক, ও সন্ত্রাসবাদ দূর করবো। ফলে সদর উপজেলা প্রতিটি শিক্ষার্থী সুশিক্ষার পাশাপাশি মাদক হতে বিরত থাকবে। অপরদিকে প্রতিটি সমাজ আধুনিক উন্নয়নের ছোয়া পাবে। নাগরিক কমিটির জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সবুর খান বীরবিক্রমের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ফজলুল হক, মুরাদ সিদ্দিকীর সহধর্মিনী নিহার সিদ্দিকী, টাঙ্গাইল চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ড্রাট্রিজ এর পরিচালক মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান মনি আরজু, বিবেকানন্দ হাই স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আনন্দ মোহন, জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি আব্দুর রউফ রিপন, নওশাদ আহমেদ নবীন, মাহমুদ মামুন খান, সোলায়মান আহমেদ শ্যামল, মো. জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

এর আগে জনসভা উপলক্ষে বৃষ্টি উপেক্ষা করে সদর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল এসে পৌর উদ্যানে সমবেত হয়।

#ফরিদ মিয়া, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি।

 

পাঠকের মতামত