প্লাস্টিক বোতলের গায়ে থাকা চিহ্নগুলো বুঝে নিন, সুস্থ থাকুন

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে প্লাস্টিক একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যবহার্য বস্তু। খুব সহজ লভ্য, টেকসই এবং সহজে পরিষ্কার করা যায় বলে আমরা প্লাস্টিকের সামগ্রী  ব্যবহার করতে বেশি সাছন্দ্যবোধ করি। যদিও আমরা জানি প্লাস্টিক পরিবেশের জন্য কতটুকু ক্ষতিকারক। তবুও খাদ্য দ্রব্য রাখা থেকে শুরু করে গৃহস্থালি সকল কাজেই প্লাস্টিক এখন অহরহ ব্যবহার হচ্ছে।

তৃষ্ণা মেটানোর জন্য দোকান থেকে একটা মিনারেল ওয়াটারের বোতল কিনলেন। পানি পান করে বোতলটি পরবর্তিবার ব্যবহারের জন্য রেখে দিলেন। বাড়িতে খালি তেলের বোতলে অনেকে বৃষ্টির পানি মজুদ করে রাখেন। এমনকি বাচ্চাদের খাবার, দুধ সবকিছুতে আমরা প্লাস্টিকের ব্যবহার করছি।

আরো পড়ুন>> ক্যান্সারের খরচের ব্যয়বহুলতা! অর্থনীতিতে কেমন প্রভাব পড়ছে?

কিন্তু কিছু প্লাস্টিক সামগ্রী যে পরিবেশের সাথে সাথে আমাদের স্বাস্থ্যের জন্যও ক্ষতিকর সেটি কি আমরা জানার চেষ্টা করেছি?কোন প্লাস্টিক সামগ্রী শরীরের জন্য ক্ষতিকর, সেটি জানতে হলে আপনাকে যে ল্যাব টেকনিশিয়ান হতে হবে তা কিন্তু না। কোন বোতল কতটুকু ক্ষতিকর সেটি বোতলের গায়ে কিছু চিহ্ন দ্বারা আঁকা থাকে।

জেনে নিই চিহ্নগুলো:

Bottles Safety Marks

ত্রিকোণ চিহ্ন: প্লাস্টিক বোতলের মোড়কে, নিচে বা ছিপিতে একধরণের ত্রিকোণ চিহ্ন থাকে। এই চিহ্ন থাকলে বুঝতে হবে বোতলটি বিধিসম্মতভাবে তৈরি। ব্যাপারটা আসলে ত্রিকোণ চিহ্নের মাঝে থাকা সংখ্যা নিয়ে।

ত্রিকোণ চিহ্নে “১” :  আমরা দোকান থেকে মিনারেল ওয়াটার বা সফট ড্রিংস এর যে বোতলগুলো ক্রয় করে থাকি সেগুলোতে “১” লিখা থাকে। অর্থ্যাৎ এগুলো একবার ব্যবহার করার যোগ্য। এগুলো তৈরি হয় পলিথিলিন টেরেপথ্যালেট নামক একধরণের যৌগ দিয়ে। এটি বেশি ব্যবহার করলে স্বাস্থ্যের ক্ষতি হয়।

ত্রিকোণ চিহ্নে “২”  শ্যাম্পু বা সাবান জাতীয় দ্রব্যের বোতলে “২” চিহ্ন থাকে। এগুলো ঘন পলিথিন দ্বারা তৈরি করা হয়। এগুলোও ক্রমাগত ব্যবহার শরীরের জন্য যথেষ্ট ক্ষতিকারক।

ত্রিকোণ চিহ্নে “৩” : এ ধরণের বোতল তৈরিতে পোলিভিনিল ক্লোরাইড বা পিভিসি এর মত ঘন প্লাস্টিক ব্যবহার করা হয়। এ প্লাস্টিকের বোতল ব্যবহারের ফলে ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

Bottles safety marks

ত্রিকোণ চিহ্নে “৪” : বহু উপযোগী বোতল হচ্ছে  “৪”। এটি অনেকবার ব্যবহার করা যায়। এ ধরণেরে বোতল মানব স্বাস্থ্যের অনুকূলে রেখে তৈরি করা হয়। তবে এই সংখ্যা খুব দামী প্লস্টিকের বোতলের নিচে বা মোড়কে লিখা থাকে।

ত্রিকোণ চিহ্নে “৫” : আমরা যে ঔষধের প্লাস্টিকের বোতল ব্যবহার করি সেগুলোতে এই “৫” সংখ্যা থাকে। এগুলো মানব স্বাস্থ্যের জন্য খুবই নিরাপদ। এমনকি আইস্ক্রিমের কাপের গায়েও এই সংখ্যা থাকে।

মানব স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর হচ্ছে “৬” এবং “৭” সংখ্যা লিখা থাকা প্লাস্টিক বোতল। এ ধরণের বোতল বিষাক্ত এবং শক্তিশালী পলিস্টিরিন এবং পলিকার্বনেট বিসপেনল দিয়ে। এটি এতোটাই মারাত্মক কয়েকবার ব্যাবহার করলে আপনার হরমোন সমস্যা এবং ক্যান্সার অবধারিত। তাই বিশেষজ্ঞরা এগুলোকে রেড কার্ড বলে। সাধারণত হাই টক্সিক কোন পদার্থ বহনের জন্য এ ধরণের প্লাস্টিক ব্যবহার করা হয়।

#শুভ আহম্মেদ, বিডি৩৬০নিউজ

আরো পড়ুন>>

পাঠকের মতামত