উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এত পিছিয়ে কেন? কী তার কারণ?

আন্তর্জাতিক গবেষণা প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল ইনোভেশন ইনডেক্স ২০১৮ অনুযায়ী নানা দেশের উদ্ভাবনী ক্ষমতার ওপর তৈরিকৃত তালিকায় সব চেয়ে পিছিয়ে আছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে এশিয়ার সবচেয়ে বেশি উদ্ভাবনী শক্তিওয়ালা দেশের সারিতে রয়েছে সিঙ্গাপুর।

কিন্তু উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ এত পিছিয়ে কেন? কী তার কারণ? এই নিয়ে বিশেষ এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা বিবিসি।

এই প্রতিবেদনে উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পিছিয়ে থাকার কারণ হিসেবে ‘ফান্ডিং-র অভাব’-এর কথা উল্লেখ করছেন  ‘দ্য ইনোভেশন হাব’ এর প্রতিষ্ঠাতা ইমরান ফাহাদ।

তিনি বলছেন, এক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় বাধা হচ্ছে ফান্ডিং-র অভাব। “আমাদের দেশে স্টার্ট-আপ কালচার মাত্র শুরু হয়েছে,” উল্লেখ করে তিনি জানান, “এধরনের প্রকল্পের জন্য সরকারের কাছে অর্থ ঠিকই রয়েছে। শুধু সে সম্পর্কে মানুষকে আরো বেশি বেশি করে জানাতে হবে।”

এদিকে আবার প্রযুক্তিবীদ অধ্যাপক মোহাম্মদ কায়কোবাদ বলছেন অন্য কথা। তাঁর মতে, উদ্ভাবনী শক্তির দিকে থেকে  বাংলাদেশ অন্য কোন দেশের চেয়ে কম নয়। মেধার পরিচর্যার অভাবকে উদ্ভাবকদের জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে চিহ্নিত করেন তিনি। গবেষণার খাতে সরকারি অর্থায়নের নিয়মকে সম্পুর্ণভাবে বদলে দেয়া দরকার বলে মন্তব্য তাঁর।

এই প্রযুক্তিবীদ এও জানান যে, বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে গবেষণার জন্য কিছু অর্থ বরাদ্দ থাকে। কিন্তু প্রকৃত গবেষণার বদলে যন্ত্রপাতি কেনাকাটায় ব্যয় হয়ে যায় সেই টাকা।

পাঠকের মতামত