বাংলাদেশের ছায়া প্রতিপক্ষ হাথুরুসিংহে

চন্ডিকা হাথুরুসিংহের কথা বলতে হয়, বাংলাদেশের হয়ে জিনি বেশি নাম কুড়িয়েছেন।  এখন তিনি শ্রীলঙ্কার কোচ। বাংলাদেশের ক্রিকেটের আনাচে কানাচের খবর জানেন তিনি। সেক্ষেত্রে এশিয়া কাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে হাথুরুসিংহেকে ‘শক্তি’ হিসেবেই দেখছেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। তিনি বাংলাদেশ দলের শক্তি ও দুর্বলতার জায়গাগুলো জানেন বলেই মনে করছেন শ্রীলঙ্কার এই ব্যাটসম্যান।

বাংলাদেশের হয়ে অনেক বিজয় গাথাঁ স্মৃতির জন্মদিয়েছেন তিনি। কিন্তু তাকে নিয়েই বাংলাদেশের যত ভয়। বাংলাদেশ থেকে তাঁর বিতর্কিত বিদায়ের জন্যই। নিদাহাস ট্রফিতেও আলোচিত হয়েছে হাথুরু প্রসঙ্গ। বাদ যাচ্ছে না এশিয়া কাপও। এই টুর্নামেন্টেও হাথুরুসিংহে কী বাংলাদেশের ছায়া প্রতিপক্ষ?

প্রতিপক্ষ দলের কোচ হওয়ায় হাথুরুসিংহে আসলে ‘ছায়া’ নন সরাসরি প্রতিপক্ষই। ১৫ সেপ্টেম্বর এশিয়া কাপের প্রথম ম্যাচে তাঁকে দেখা যাবে বাংলাদেশের দলের বিপক্ষ শিবিরে। সেদিন শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হয়ে এশিয়া কাপ অভিযান শুরু করবে বাংলাদেশ। আর এই ম্যাচে বাংলাদেশকে হারাতে হাথুরুসিংহেকে ‘শক্তি’ হিসেবে দেখছেন ধনঞ্জয়া ডি সিলভা। কারণ, বাংলাদেশ দলের কোচের দায়িত্ব পালন করায় তামিম-সাকিবদের আদ্যোপান্ত জানেন হাথুরুসিংহে। কোচের কাছ থেকে প্রতিপক্ষ দলের শক্তি ও দুর্বলতাগুলো জেনে তা কাজে লাগাতে চায় শ্রীলঙ্কা।

বাংলাদেশকে হারাতে হাথুরুসিংহে যে শ্রীলঙ্কার শক্তি—সংবাদ সম্মেলনে সে কথাই বললেন ধনঞ্জয়া, ‘এটি (হাথুরু বাংলাদেশের সাবেক কোচ) আমাদের জন্য শক্তিশালী জায়গা।’ শ্রীলঙ্কার সাবেক এই ক্রিকেটার তিন বছর বাংলাদেশ দলের দায়িত্বে ছিলেন। তাঁর অধীনেই আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বেশ কিছু সাফল্য পেয়েছে বাংলাদেশ।

তামিম-সাকিবদের ভেতরকার খবর হাথুরুসিংহে তাই ভালোই জানে। কোচের কাছ থেকে এই খবরগুলো নিয়ে তা কাজে লাগাতে চায় শ্রীলঙ্কা। ধনঞ্জয়ার ভাষায়, ‘ সে (হাথুরুসিংহে) তাঁদের (বাংলাদেশ) ব্যাটিং-বোলিংয়ের শক্তি ও দুর্বলতার জায়গাগুলো জানে। এখান থেকে ইতিবাচক বিষয়গুলো তুলে নেওয়ার ভালো সুযোগ রয়েছে আমাদের।’

পাঠকের মতামত