অফিস চলাকালীন এসিডিটি? জেনে নিন কী করবেন

সারা দিনে আমাদের বিভিন্ন কাজ করতে হয়। বিশেষ করে যারা অফিসে বসে ঘন্টার পর ঘন্টা এক নাগাড়ে কাজ করে যান। তাদের বিভিন্নরকম শারিরীক জটিলতা দেখা দিতে পারে। যেমন এসিডিটি। একটা বিব্রতকর বিষয় বটে। যা সাধারণত পাকস্থলি হতে অ্যাসিড নিঃসরণের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার কারণে হয়। এটা আসলে কোন রোগ না। এটা সাধারণত কিছু বদভ্যাসের কারণে হয়ে থাকে। তবে অন্য যেকোন রোগের চেয়েও এটা মাঝে মাঝে খারাপ আকার ধারণ করতে পারে।

একই জায়গায় দীর্ঘ সময় ধরে বসে থাকা এবং চলাফেরার অভাব অ্যাসিডিটির মূল কারণগুলোর একটি। যেহেতু কর্মক্ষেত্রে একই জায়গায় দীর্ঘ সময় ধরে বসে থাকতে হয়, তাই এ ধরণের সমস্যা এড়াতে কিছু উপায় অবলম্বন করা যেতে পারে।

যেমন, কাজের ফাঁকে ফাঁকে মাঝে মধ্যে একটু দাঁড়িয়ে নিন। যেহেতু অ্যাসিডিটি-এর অন্যতম একটি বড় কারণ হচ্ছে হাঁটাহাটির অভাব, তাই অফিসে প্রতি ৩০ মিনিট অন্তর হাঁটাহাটি করার অভ্যাস তৈরি করুন যা আপনার অ্যাসিডিটি-এর সমস্যা সমাধানে সহায়ক হবে।

চেষ্টা করুন অফিসের লিফট ব্যবহার না করার। অভ্যাস গড়ে তুলুন সিড়ি দিয়ে নামার।

এমনকি পানির পিপাসা পেলে অফিস বয়-কে পানি আনতে না বলে নিজে গিয়েই নাহয় পানি এনে নিন। আপনারই উপকার এতে; হাঁটাচলার কাজটাও হয়ে যাবে।

মোবাইলে কথা বলার অভ্যাস করতে হবে দাঁড়িয়ে। সহকর্মীদের সাথে মোবাইল-এ বা ইমেইল-এ যোগযোগ না করে স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে তাদের সাথে যোগযোগ করুন। অফিসে আপনার ডেস্কটি এমনভাবে স্থাপন করুন যাতে করে ক্লায়েন্ট-এর সাথে দাঁড়িয়েও কাজ করতে পারেন।
সাধারণত যেটা ঘটে যে, চার ঘণ্টার বেশি সময় ধরে পেট যদি খালি থাকে তাহলে তা অ্যাসিডিটি হয়। হজমক্রিয়া সঠিকভাবে না হলেও তা অ্যাসিডিটি সৃষ্টির কারণ হয়। এজন্য খাবার শেষ করার সাথে সাথেই আবার কাজ করা শুরু না করে কিছুক্ষণ হাঁটুন। পানি বেশি করে।
এড়িয়ে চলুন ফাস্টফুড, রাস্তার খাবার, ভাঁজা-পোড়া, মসলাজাতীয় খাবার, চা ও কফি পান, কোমল পানীয় ও অ্যালকোহল পান এবং ধূমপান করা।

 

পাঠকের মতামত