দেশে রোহিঙ্গা আছে ১১ লাখ ১৮ হাজার ৫৭৬ জন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, মিয়ানমার থেকে দেশে আসা রোহিঙ্গার বর্তমান সংখ্যা ১১ লাখ ১৮ হাজার ৫৭৬ জন। এসব রোহিঙ্গা শরণার্থী এখন আর অনিবন্ধিত নেই। সব রোহিঙ্গা শরণার্থীকে নিবন্ধিত করা হয়েছে। বুধবার জাতীয় সংসদে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে চলা বৈঠকে প্রশ্নোত্তর পর্বে সাংসদ মুহিবুর রহমান মানিকের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির নতুন জন্ম নেয়া সন্তানদের বায়োমেট্রিক নিবন্ধনের জন্য ওয়ার্ক স্টেশন বিদ্যমান আছে। এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে দেশের মানুষের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে। মাদকবিরোধী অভিযানের ফলে জঙ্গিবিরোধী অভিযান ব্যাহত হবে না বরং আরও জোরদার হবে।

মাদকবিরোধী অভিযান নিয়ে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় মাদকবিরোধী অভিযান চলছে। প্রধানমন্ত্রী মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণার পরে দেশবাসী প্রধানমন্ত্রীর জন্য দু’হাত তুলে দোয়া করছেন। তারা বলছেন এই অভিযান যেন বন্ধ না হয়।

সংসদ এসএম আবুল কালাম আজাদের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আইনি কারণে আমরা সীসা সেবনকারীদের আইনের আওতায় আনতে পারছি না। তবে সরকার মাদক আইন সংশোধনের যে উদ্যোগ নিয়েছে, সেখানে সীসাকে মাদক হিসেবে উল্লেখ করা হচ্ছে।

সংরক্ষিত আসনের জাহান আরা বেগম সুরমার প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, দেশের বিভিন্ন কারাগারে বর্তমানে ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি রয়েছে একহাজার ৫৯৬ জন। এর মধ্যে নারী কয়েদি রয়েছে ৪৩ জন।

পাঠকের মতামত