থাই গুহায় আটক ফুটবলারদের বিশ্বকাপ দেখতে ফিফার আমন্ত্রণ

থাইল্যান্ডের গুহায় আটকা পড়া ১২ ফুটবলার ও তাদের কোচকে বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলা দেখতে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ফিফার সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। তাদেরকে মনোবল বৃদ্ধির জন্য কথা জানিয়েছেন বিভিন্ন দলের খেলোয়ারা। তাদের সাহসিকাতয় মুগ্ধ হয়েছেন এসব তারা।

ব্রাজিলের লিজেন্ড রোনালদো থেকে শুরু করে ইংল্যান্ডের জন স্টোনস বলেছেন, তারা ওই ফুটবল টিমকে উদ্ধারের চেষ্টা গভীরভাবে খেয়াল রাখছেন। এমন এক সময় ওই ফুটবল টিম গুহায় আটকা পড়ে যখন রাশিয়ায় ফুটবল বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক সমর্থক জানিয়েছেন, দুই সপ্তাহ মাটির নিচে অন্ধকারে কাটানোর সাহসিকতার কারণে ওই টিমকে বিশ্বকাপের ট্রফি দেয়া উচিত।

ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার একটি অনুষ্ঠানে রোনালদো বলেছেন, এটা খুব ভয়াবহ একটি খবর এবং ফুটবল বিশ্ব আশা করে যে, কেউ একজন ওই শিশুদের বের করে আনার পথ বের করতে পারবে।

দ্য ওয়াইল্ড বোরর্স ফুটবল টিমের সদস্যদের বয়স ১১ থেকে ১৬ বছর। গেলো ২৩ জুন ট্রেনিং শেষে তাদের ২৫ বছর বয়সী কোচের সঙ্গে ওই গুহায় ঢোকার পর প্রবল বৃষ্টিপাতের কারণে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় তারা সেখানে আটকা পড়ে।

থাইল্যান্ডে বেশ জনপ্রিয় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ফুটবল ক্লাব লিভারপুল। লিভারপুলের ম্যানেজার জুর্গেন ক্লপ ক্লাবটির আদর্শ ‘তোমরা একা নও’ এটির উদ্ধৃতি দিয়ে বলেছেন, মনোবল হারিও না এবং জেনে রেখো আমরা তোমাদের সঙ্গে আছি।

এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, আমরা তোমাদের সব খবর ফলো করছি এবং তোমরা যাতে আবারও দিনের আলো দেখতে পাও, প্রতি মুহূর্তে সেই আশাই করছি। এটি কয়েক মিনিট, কয়েক ঘণ্টা বা পরবর্তী কয়েক দিনের মধ্যে ঘটবে বলে আমরা আশাবাদী।

ইংলিশ তারকা স্টোনস বলেছেন, তিনি সুইডেনের সঙ্গে তাদের কোয়ার্টার ফাইনালের আগে তার দলের সদস্যদের সঙ্গে গুহার উদ্ধার নিয়ে আলোচনা করছেন।

এই ডিফেন্ডার বলেন, আমি দলের কয়েকজনের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলেছি। তাদের এই অবস্থা খুব কষ্টদায়ক এবং আমরা আশা করি যে, তারা নিরাপদেই সেখান থেকে বের হতে পারবে।

ক্রোয়েশিয়া ফুটবল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, চাপের মধ্যেও ওই টিমের ধীরস্থিরতায় তারা ‘মুগ্ধ’। ক্রোয়েশিয়ান ফুটবল ফেডারেশন তাদের ওয়েবসাইটে জানিয়েছে, এ ধরনের ভীতিকর পরিস্থিতিতে ওই কিশোররা ও তাদের কোচ যে সাহস ও শক্তি প্রদর্শন করছেন, তাতে আমরা মুগ্ধ।

তারা বলছে, এই অবস্থা খেলাধুলার চেয়ে বড় কিন্তু প্রতিযোগিতামূলক মনোভাবই তাদের বর্তমান চ্যালেঞ্জের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে সাহায্য করবে।

ফিফা সভাপতি জিয়ান্নি ইনফান্তিনোও থাই ফুটবল টিমের সমর্থনে থাইল্যান্ড ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনকে চিঠি পাঠিয়েছেন। ফেসবুকে পোস্ট করা ওই চিঠিতে ইনফান্তিনো লিখেছেন, ফিফা ওই উদ্ধার অভিযানের সব খবরাখবর রাখছে এবং ১২ শিশুকে পাওয়া গেছে এমন ‘ভালো খবরে স্বস্তি’পেয়েছে

পাঠকের মতামত