সালাহর মতোই দেখতে এই বাহা! | বিডি৩৬০নিউজ

সালাহর মতোই দেখতে এই বাহা!

সালাহ আর বাহা। বোঝা কঠিন কোনটা কে। ছবি: ইনস্টাগ্রাম

দুজন পাশাপাশি দাঁড়ালে আলাদা করে চেনা কঠিন। যেন মায়ের পেটের যমজ ভাই। আহমেদ বাহাকে মোহাম্মদ সালাহ মনে করে মানুষ তাই ভুলও করে।

লিভারপুল ফরোয়ার্ড অবশ্য নিজেই বাহাকে দেখে চমকে গেছেন। সালাহর প্রথম মনে হয়েছিল সে যেন আয়নায় নিজের চেহারা দেখছেন।

আসলে আয়না নয়, মানুষ দুটি আলাদা। তবে দুই জনই মিসরের। ৩০ বছর বয়সী বাহা পেশায় ব্যবসায়ী। আর সালাহ ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের নতুন তারকা। লিভারপুলের হয়ে অভিষেক মৌসুমেই ভাঙছেন ও গড়ছেন রেকর্ডের পর রেকর্ড। মিসরে সালাহ তাই তুমুল জনপ্রিয়। আর সালাহর এই জনপ্রিয়তাই বাহা আলোচনায় এসেছে।

কায়রোর রাস্তায় বাহা নামলে মানুষ তাঁকে সালাহ মনে করে আগ্রহ দেখায়। রেস্তোরাঁয় গেলে অটোগ্রাফ চায়। এই তো কদিন আগে চ্যাম্পিয়নস লিগ সেমিফাইনালে লিভারপুল-রোমা ম্যাচ দেখতে বাহা ঢুঁ মেরেছিলেন এক রেস্তোরাঁয়। মানুষের তো চক্ষু চড়কগাছ। আরে, এ তো সালাহ! তাঁর তো মাঠে থাকার কথা? বাহাকে তখন সব বুঝিয়ে বলতে হয়। আসলে লিভারপুলের ২৫ বছর বয়সী ফরোয়ার্ডের সঙ্গে বাহার চেহারার এতটাই মিল যে সংবাদমাধ্যমও তাঁকে লুফে নিয়েছে।

একইরকম চুল আর দাঁড়ি। চোখ এবং মুখের গঠনও অবিকল একই রকম। ২০১৬ সালে বাহার সঙ্গে প্রথম দেখায় সালাহ নিজেই চমকে গিয়েছিলেন। সালাহ তখন রোমার খেলোয়াড়। সেই সাক্ষাৎ নিয়ে সংবাদমাধ্যমকে বাহা বলেন, ‘আমাকে দেখেই চমকে গিয়েছিল। তাঁর কাছে মনে হয়েছে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে আছে। কিন্তু আমি নই, সে আমার মতো দেখতে। কারণ আমি তাঁর চেয়ে বয়সে বড়।’

কায়রো বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ব্যবসায় স্নাতক করা বাহা এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আকর্ষণের কেন্দ্রবিন্দু। তাঁর অনুসারীসংখ্যাও ক্রমেই বাড়ছে। মিসরের টিভি চ্যানেলে বাহা এখন পরিচিত মুখ। জাতীয় দল ও লিভারপুলের জার্সিতে দেখা যায় তাঁকে দেশটির গণমাধ্যমে। জার্সির পেছনে লেখা সালাহ। তখন কিন্তু লিভারপুল তারকাকে বাহার পাশে দাঁড় করিয়ে দিলে সত্যিই বোঝা কঠিন কে আসল সালাহ!

তবে ফুটবল তারকাদের মতো হুবহু চেহারার নজির এটাই প্রথম নয়। লিওনেল মেসি থেকে জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ ও জেমি ভার্ডিরা তাঁদের মতোই চেহারার ‘আরেকজন’কে দেখেছেন। এবার দেখলেন সালাহ।

পাঠকের মতামত