শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ | বিডি৩৬০নিউজ

শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ

প্রথম কিংবা দ্বিতীয় কোয়ার্টারে কোনও দল গোল করতে পারেনি। তৃতীয় কোয়ার্টারে শ্রীলঙ্কা এগিয়ে গিয়ে চিন্তার ভাঁজ ফেলে দিয়েছিল। ৩৪ মিনিটে সুদুসিংঘে সান্দারুয়ানা আক্রমণ থেকে দলকে এগিয়ে নেন। শেষ কোয়ার্টারে ম্যাচ আরও জমে ওঠে। ৪৯ মিনিটে রোমান সরকার বাংলাদেশ শিবিরে স্বস্তি ফিরিয়ে আনেন। আক্রমণ থেকেই ম্যাচে সমতা আনেন এই মিডফিল্ডার।

তার জোড়া গোলের ওপর ভর করেই ম্যাচটি শেষ পর্যন্ত বাংলাদেশ জিতেছে ৩-২ গোলে। বাংলাদেশের অন্য গোলটি করেছেন মিলন হোসেন। এই জয়ে এশিয়ান গেমস হকি বাছাইয়ের ফাইনালে পৌঁছে গেল বাংলাদেশ। ১৭ মার্চ অনুষ্ঠিত হবে ফাইনাল। থাইল্যান্ড ও ওমানের মধ্যকার জয়ী দল হবে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ।

৩৮ মিনিটে থারাঙ্গার গোলে এগিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা, ০-১। ১১ মিনিট পরে বাংলাদেশকে সমতায় ফিরিয়েছেন রোমান সরকার, ১-১। সমতায় ফিরে একটু নড়ে চড়ে বসার আগেই আবার গোল হজম করে বাংলাদেশ। ৫১ মিনিটে ব্যবধান ১-২ করেছেন ধাম্মিকা। পরের মিনিটেই আবার বাংলাদেশকে সমতায় ফেরান রোমান, ২-২। বাংলাদেশের পক্ষে ৫৮ মিনিটে জয় সূচক গোলটি করেন মিলন হোসেন।

২০১৪ সালে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েই এশিয়ান গেমস হকি বাছাইপর্বের ফাইনালে উঠেছিল বাংলাদেশ। সেবারের হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পরে আর কখনোই বাংলাদেশের সামনে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারেনি লঙ্কানরা। তাদের বিপক্ষে শেষ লড়াইয়ে বাংলাদেশ জয় পেয়েছিল ৯-১ গোলে। তাই হয়তো লঙ্কানদের হালকা ভাবে নিয়েছিল বাংলাদেশ। আর সেই সুযোগটাই কাজে লাগাতে চেয়েছিল শ্রীলঙ্কা। তবে বাংলাদেশই হেসেছে শেষ হাসি।

বাংলাদেশ ফাইনালে না উঠতে পারলে দুর্ঘটনাই হতো। কেননা আজকের ম্যাচের আগে বাছাইপর্বের গ্রুপপর্বে ৩৫ গোল দিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে থাইল্যান্ডের বিপক্ষে ৫-০ গোলে জিতে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ম্যাচে হংকংয়ের সঙ্গে বাংলাদেশের জয়ের ব্যবধান ছিল ৫-১। আর শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের জালে ২৫ গোল দিয়েছিল বাংলাদেশ।

এশিয়ান গেমস হকির বাছাইপর্বে বরাবরই ভালো করে বাংলাদেশ। এবারও স্বপ্ন চ্যাম্পিয়নশিপের। বাছাইপর্বের সেরা পাঁচ দল আগামী আগস্টে ইন্দোনেশিয়ার জাকার্তা এশিয়াডে খেলার সুযোগ পাবে। বাংলাদেশের এশিয়াড নিশ্চিত হয়ে গেছে ইতিমধ্যেই।

আগামীকাল নিদাহাস ট্রফিতে এমনই এক ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ আর শ্রীলঙ্কাই। এর আগে ওমান থেকে উড়ে এল সুখবর। এই সংবাদ কলম্বোয় উজ্জীবিত করতেই পারে মুশফিকদের।

পাঠকের মতামত