কিডনি সুস্থ রাখতে খাবার | বিডি৩৬০নিউজ

কিডনি সুস্থ রাখতে খাবার

সারা বিশ্বে শতকরা দশ ভাগ মানুষ কিডনিসংক্রান্ত নানা জটিলতায় ভুগছেন। কিডনি আকারে ছোট হলেও শরীরের খুবই গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। বিভিন্ন কারণে শরীরের এই গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গটি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

ডায়বেটিস এবং উচ্চ রক্তচাপ থাকলে কিডনির সমস্যার হতে পারে। এছাড়া স্থূলতা, ধূমপান, জেনেটিক এবং বয়সের কারণেও এই সমস্যার ঝুঁকি বাড়ে।

অনিয়ন্ত্রিত ডায়বেটিস এবং উচ্চ রক্তচাপ কিডনির রক্তনালি ক্ষতিগ্রস্ত করতে , কার্যক্ষমতা কমাতে পারে । যখন কিডনি ঠিকমতো কাজ করে না তখন খারাপ রক্ত শরীরে ছড়িয়ে পড়ে। যাদের কিডনি সমস্যা আছে বা কিডনি রোগের ঝুঁকি আছে তাদের জন্য কয়েকটি খাবার বেশ উপকারী। এইসব খাবার শরীরের রক্ত চলাচল ঠিক রেখে কিডনিকে সুরক্ষিত রাখে।

ফুলকপিতে ভিটামিন সি, কে এবং বি থাকে। প্রচুর পরিমানে আঁশও পাওয়া যায় এতে। এছাড়া এতে সোডিয়াম, পটাশিয়াম এবং ফসফরাসের উপস্থিতিও থাকে নির্দিষ্ট পরিমানে থাকে যা শরীরের জন্য খুবই উপকারী। যাদের কিডনি সমস্যা আছে তারা এই সবজি রাখতে পারেন প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায়।

জামে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট কিডনির জন্য বেশ উপকারী। এতে খুবই কম পরিমানে সোডিয়াম, পটাশিয়াম, ফসফরাস থাকে যা কিডনি রোগীদের ভাল থাকতে সাহায্য করে।

লাল আঙ্গুরে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা কিডনি সম্পর্কিত জটিলতা রোধ করতে সাহায্য করে।

যাদের কিডনি সমস্যা আছে তাদের সোডিয়াম জাতীয় খাবার খাওয়ার ব্যাপারে নির্দিষ্ট সীমারেখা রাখার উপদেশ দেন বিশেষজ্ঞরা। সেই সঙ্গে কাঁচা লবণ খেতেও নিষেধ করেন। রসুন লবণের দারুন বিকল্প  খাবার। এতে প্রচুর পরিমাণে ম্যাঙ্গানিজ , ভিটামিন সি এবং ভিটামিন বি থাকে। এগুলো কিডনির সুরক্ষায় সাহায্য করে।

ফুলকপির মতো বাঁধাকপিও নানা পুষ্টিগুণে সমৃদ্ধ একটি সবজি। । এতে থাকা ভিটামিন কে, সি এবং বি শরীরের জন্য দারুন উপকারী।

আপেল শরীরের কোলেস্টরলের মাত্রা কমায়, শর্করা নিয়ন্ত্রণ করে। আর আপেলের খোসাতে প্রচুর পরিমানে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা মস্তিষ্কের সেল রক্ষায়ও ভূমিকা রাখে। কিডনি সুস্থ রাখতে আপেলও বেশ কার্যকরী ভূমিকা পালন করে।

পালং শাকে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন এ , সি, কে থাকে। এর মধ্যে থাকা বিটা ক্যারোটিন শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় , দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখতে সাহায্য করে। পালং শাককে কিডনি সুরক্ষার জন্য উপকারী খাবার বলছেন বিশেষজ্ঞরা।

সুত্র: সমকাল

পাঠকের মতামত