ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সবচেয়ে বড় উৎসব ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড-২০১৭’ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করলেন প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার সকালে বঙ্গবন্ধু ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স সেন্টার (বিআইসিসি)-তে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন রোবট মানব সোফিয়ার সঙ্গে কথা বলে চারদিনে এই উৎসবের উদ্বোধন করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী তাঁর নির্ধারিত বক্তব্যের শেষে সিঙ্গাপুরে প্রস্তুত ও সৌদি আরবের নাগরিকত্ব পাওয়া কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন রোবট সোফিয়ার সঙ্গে কথা বলেন। এর পরই তিনি মেলার উদ্বোধনের ঘোষণা দেন।

এসময় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুসহ মন্ত্রিপরিষদের বেশ কয়েকজন সদস্য উপস্থিত ছিলেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আয়োজনে পঞ্চমবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই উৎসব। চলবে শনিবার পর্যন্ত।

নয় বছরের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের আগ্রগতি তুলে ধরে বাংলাদেশসহ বিশ্বের কাছে ডিজিটাল বাংলাদেশ সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা দিতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে তথ্যপ্রযুক্তির এই মহাযজ্ঞ।

এবারের ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের প্রতিপাদ্য ধরা হয়েছে ‘আগামীর জন্য প্রস্তুত-রেডি ফর টুমরো’। মূলত এ প্রতিপাদ্য তথ্য-প্রযুক্তির যুগে বাংলাদেশের অর্জন ও অগ্রগতিকেই প্রতিফলিত করে। বাংলাদেশ এখন আর অনুসরণকারী নয় বরং ভবিষ্যৎ বিশ্বকে নেতৃত্ব দেয়ার জন্য বাংলাদেশ প্রস্তুত। প্রস্তুত মানব সম্পদ, প্রস্তুত অবকাঠামো।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড পরিদর্শন করার জন্য সকলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। এই প্রদর্শনীতে প্রবেশের জন্য কোনো টিকিট লাগবে না। তবে আগে থেকে অনলাইনে নিবন্ধন করতে হবে।

রেজিস্ট্রেশন করা যাবে এই লিংকে: https://digitalworld.org.bd/signup

রোবট সোফিয়াহংকং এর একটি কোম্পানি ‘হ্যান্সন রোবোটিক্স’-এর আলোচিত রোবট। নারীর আদলে তৈরি করা এই রোবটটি ৬ বিআইসিসির হল অব ফ্রেমে রোবটটিকে উপস্থাপন করা হবে। এসময় এর নির্মাতা ড. ডেভিড হ্যানসনও উপস্থিত থাকবেন।

ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে ৭০ জন বিদেশি এবং শতাধিক স্পিকার ২৯টি সেশনে অংশ নেবেন। এতে গুগল, ফেসবুক, নুয়ান্স, অ্যাংরিবার্ড, কোয়ালকম এবং মটোরোলাসহ পৃথিবীর শীর্ষ আইটি প্রতিষ্ঠানের অংশ নেয়ার কথা রয়েছে।

মেলার পার্টনার হিসেবে থাকছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং(বাক্য), ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব), বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরাম (বিআইজেএফ), বাংলাদেশ উইমেন ইন আইটি (বিআইডব্লিউটি), সিটিও ফোরাম।

সুত্র: বিবার্তা

পাঠকের মতামত