খুলনা বিভাগের দশ জেলায় চরম চিকিৎসক সংকট

খুলনা বিভাগের দশ জেলায় চলছে চিকিৎসক সংকট। মঞ্জুরিকৃত এক হাজার চিকিৎসকের পদ শূন্য থাকায় গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর বড় অংশই চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। চিকিৎসকের পদ শূন্য থাকায় চিকিৎসা সেবা প্রদানে হিমসিম খাচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তবে খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য কার্যালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, শিগগির নতুন চিকিৎসক নিয়োগ করা হবে।

স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, খুলনা বিভাগের দশ জেলায় এক হাজার ৮শ’ ১৩ জন চিকিৎসকের পদের অনুমোদন রয়েছে। এর মধ্যে পদায়ন রয়েছে ৮শ’ ৮৯ জন। শূন্য পদের সংখ্যা ৯শ’ ২৪টি। বিভাগের দশ জেলার ৫৭টি উপজেলায় একটি করে ৫০ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স রয়েছে। প্রতিটি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৯ জন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক থাকার কথা থাকলেও ২ থেকে ৩ জনের বেশি চিকিৎসক নেই এসব জায়গায়। যারা চিকিৎসক হিসেবে রয়েছেন তাদেরও নিয়মিত পাওয়া যায়না স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। জেলা সদর বা জেনারেল হাসপাতাল এবং মেডিকেল কলেজ ও বিশেষায়িত হাসপাতালে অনুমোদিত পদের প্রায় অর্ধেক পদ শূন্য রয়েছে।

সরেজমিনে গেলে জন সাধারণ অভিযোগ করে জানান, অনেক বিভাগে কোনো ডাক্তার নেই। চিকিৎসার অভাবে ঢাকায় যাবার পরিকল্পনা করতে হচ্ছে। আইসিইউ নেই, ক্যান্সার বিভাগ থাকলেও নেই কোনো ডাক্তার।’

চিকিৎসকের পদ শূন্য থাকায় চিকিৎসা সেবা প্রদানে হিমসিম খেতে হচ্ছে বলে জানায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল’র তত্বাবধায়ক ডা:এ টি এম এম মোর্শেদ জানান, ‘৫০০ বেডের হাসপাতাল হলেও, প্রায় ১০০০ রোগী আসে প্রতিদিন। আউটডোরে প্রতিদিন ১০০০ হাজার রোগী দেখা হয়। সুতরাং এ সংখ্যক ডাক্তার দিয়ে এতসব রোগী দেখা সম্ভব না।’

খুলনা জেনারেল হাসপাতাল’র আর এম ও ডা:মাহবুবুর রহমান জানান, ‘বিশ জনের জায়গায় আমাদের এখানে আছে মাত্র এগারো জন। অনেকে আবার বয়সের ভিত্তিতে কাজ করতে পারে না। বিষয়টা নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন।’

নিয়োগের বিষয়ে খুলনা স্বাস্থ্য অধিদপ্তর’র উপ-পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা: মো: আবুল ফজল জানান, পয়স্বিনী মাধ্যমে দ্রুত পাঁচ হাজার চিকিৎসক নেয়া হবে। নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হলে আর চিকিৎসক পদ খালি থাকবে না।’

খুলনা বিভাগে একটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, একটি বিশেষায়িত,  ৫শ’ শয্যা বিশিষ্ট একটি, ৩টি ২শ ৫০ শয্যা, ৭টি জেনারেল হাসপাতাল এবং ৫৭টি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স রয়েছে।

atrustit-black-friday-offer

সুত্র: সময় সংবাদ

পাঠকের মতামত